১০ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ || ২৪শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

পঞ্চম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। এই দফায়ও অনিয়ম, সহিংসতার খবর পাওয়া গেছে।

চট্টগ্রাম, ভোলা, ফেনী, মানিকগঞ্জসহ বেশ কয়েকটি জেলায় নির্বাচনী অনিয়ম, সংঘর্ষ, ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে ভোটগ্রহণ বন্ধ করাসহ দায়িত্বরত কর্মকর্তাদের প্রত্যাহার করে নেয়ার ঘটনাও ঘটেছে। এ পর্যন্ত নির্বাচনি সহিংসতায় নয় জন নিহত হয়েছেন।

মানিকগঞ্জ

মানিকগঞ্জের দৌলতপুরের বাচামারা ভোটকেন্দ্রে নির্বাচনী সহিংসতায় ছলেমন খাতুন (৫০) নামে এক নারী নিহত হয়েছেন। বুধবার (৫ জানুয়ারি) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার ওই কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ছলেমন খাতুন উপজেলার বাচামারা গ্রামের খোরশেদ আলমের স্ত্রী।

জানা গেছে, আজ বুধবার দুপুরের দিকে ছলেমন খাতুন ভোট দিতে বাচামারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কেন্দ্রে যান। এ সময় ৫ নম্বর ওয়ার্ডের দুই সদস্য প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া হয়। পরে ওই নারী হার্ট অ্যাটাক করেন।

চট্টগ্রাম

চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলায় নির্বাচনী সহিংসতায় একজন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

বুধবার (৫ জানুয়ারি) দুপুর ১টার দিকে চাতরি ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে বলে জানান থানা নির্বাচন কর্মকর্তা সৈয়দ মো. আনোয়ার খালেদ। নিহত ব্যক্তির নাম ওমকার দত্ত (৩৫)।

আনোয়ারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম দিদারুল ইসলাম সিকদার এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, নির্বাচনী সহিংসতায় ১ জন নিহত হয়েছে।

বগুড়া

বগুড়ার গাবতলীতে ভোট কেন্দ্রে নৌকা মার্কার কর্মী সমর্থকদের সাথে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সংর্ঘষে গুলিতে প্রার্থীর নারী এজেন্টসহ চারজন নিহত হয়েছেন।

বুধবার (৫ জানুযারী) সন্ধ্যায় গাবতলী উপজেলার বালিয়াদিঘী ইউনিয়নের কালাই হাটা উচ্চ বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হচ্ছেন- গাবতলী উপজেলার বালিয়াদীঘি ইউনিয়নের কালাইহাটা গ্রামের খোকনের স্ত্রী মেম্বার প্রার্থী কুলসুম বেগম (৪৫), একই গ্রামের মকবুল হোসেনের ছেলে আলমগীর হোসেন (৩৫) ও একই গ্রামের মৃত ইফাত উল্লাহ ছেলে আব্দুর রশিদ (৬০)। অপরদিকে খোরশেদ আলম (৭০) নামে আরেকজন গুলিতে নিহত হয়েছেন।

ভোট গণনা শেষে ফলাফল ঘোষণা না করা নিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর করেছে নৌকা মার্কার কর্মী সমর্থকরা। বিক্ষুব্ধ কর্মী সমর্থকরা পুলিশ, বিজিবি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রের গাড়িতে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর করেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সেখানে গুলি বর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এতে হতাহতের ঘটনা ঘটে।

রাত ৮টার দিকে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে আসলে ভোট কেন্দ্রেই ব্যালট পেপার গণনা শেষে ফলাফল ঘোষণা করা হয়।

গাইবান্ধা

গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার জুমারবাড়ী আদর্শ ডিগ্রি কলেজ ভোটকেন্দ্রের বাইরে আবু তাহের (৪০) নামে এক ব্যক্তিকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে জবাই করে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষ। আবু তাহের জুমারবাড়ী ইউনিয়নের মামুদপুর গ্রামের ওমর আলীর ছেলে।

বিকেল পৌনে ৩টার দিকে টিউবওয়েল মার্কার সদস্য প্রার্থীর সমর্থক আবু তাহের অন্য সদস্য প্রার্থী রাসেল আহমেদের (ফ্যান) কর্মীদের হামলা হমলার শিকার হন। এ সময় তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে গলায় পোচ দিলে তিনি মারাত্মক আহত হন। তাকে উদ্ধার করে বগুড়ার সোনাতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। নিহতের পিতা ওমর আলী ছেলের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন। এই ঘটনায় এলাকায় অতিরিক্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে।

চাঁদপুর

চাঁদপুরে বিকেল সাড়ে ৩ টায় হাইমচর উপজেলার নীলকমল ইউনিয়নের ৬নম্বর ওয়ার্ডের বাহেরচর এলাকায় দুই চেয়ারম্যান প্রার্থী সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে ছুরিকাঘাতে ১জন মারা গেছেন। তার নাম-পরিচয় এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

এদিকে, কচুয়া উপজেলার সাচার এলাকায় দুই মেম্বার প্রার্থীর মধ্যে সংঘর্ষ দেখা দিলে চুরিকাঘাতের শিকার হন শরীফ হোসেন। হাসপাতালে নেয়ার পর তার মৃত্যু হয়। সাচার হাতিরবন্ধ গ্রামের শহীদ উল্লাহর ছেলে শরীফ হোসেন।