অলিম্পিকের এবারের আসরের  পর্দা ওঠবে কয়েকদিন পরেই । মহামারির করোনার ভয়ানক অবস্থার ভেতরও ‘গ্রেটেস্ট শো অন আর্থে’র এবারের আসর হবে টোকিওতে  । নোবেল পদক জয়ী বাংলাদেশি অর্থনীতিবিদ ড. মুহাম্মদ ইউনূস টোকিও অলিম্পিকে পাচ্ছেন  বিশেষ সম্মাননা ।

দরিদ্রতা নিরসনে অগ্রণী ভূমিকা রাখা এই বাংলাদেশিকে অলিম্পিক লরেল দেওয়ার বিষয়টি বুধবার জানিয়েছে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি। খেলাধুলার উন্নয়নের জন্য বিশেষ কাজের স্বীকৃতি হিসেবে ড. ইউনূস এ সম্মাননা পাবেন ।

২০০৬ সালে ক্ষুদ্র ঋণ দিয়ে দারিদ্রতা কমানোর স্বীকৃতি স্বরূপ নোবেল পান তিনি। আগামী ২৩ জুলাই অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অলিম্পিক লরেল দেয়া হবে ইউনূসকে। পাঁচ বছর আগে প্রথমবার এ সম্মাননা দেয়া শুরু করে আইওসি।

সাংস্কৃতিক, শিক্ষা ও শান্তিতে প্রচেষ্টার স্বীকৃতি ও ক্রীড়াঙ্গনের উন্নতির জন্য এ সম্মাননা দেয়া শুরু করে তারা। ২০১৬ রিও অলিম্পিকে প্রথমবারের মতো এ  পুরস্কার দেয়া হয় কেনিয়ার সাবেক অলিম্পিয়ান কিপ কাইনোকে। নিজের দেশে শিশুদের জন্য ঘর, স্কুল ও অ্যাথলেটিক ট্রেনিং সেন্টার খোলায় এ স্বীকৃতি দেয়া হয় তাকে।

অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ ইউনূস গ্রামীণ ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা। মুহাম্মদ ইউনূস এবং তার প্রতিষ্ঠিত গ্রামীণ ব্যাংক যৌথভাবে ২০০৬ সালে নোবেল শান্তি পুরস্কার লাভ করে। প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে এ পুরস্কার লাভ করেন তিনি।