চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় ইনকিউবেটরে জন্ম নেয়া অজগর সাপের ২৮টি বাচ্চা সীতাকুণ্ডের বোটানিক্যাল গার্ডেন ও ইকোপার্কে অবমুক্ত করা হয়েছে।

আজ বুধবার (১৪জুলাই) দুপুরে ইকোপার্কের গহীন অরণ্যে সাপগুলো অবমুক্ত করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা ব্যবস্থাপনা কমিটির সচিব রুহুল আমিন, সীতাকুণ্ড উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. শাহাদাত হোসেন, চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানার কিউরেটর শাহাদাৎ হোসেন শুভ ও বোটানিক্যাল গার্ডেন ও ইকোপার্কের রেঞ্জার মো. আলমগীর।

চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় গত ২২ জুন  ইনকিউবেটরে রাখা ৩১ টি ডিমের মধ্যে ২৮ ডিম ফুটে সাপের বাচ্চা বের হয়েছিল। এ অজগর সাপের বাচ্চাগুলোর জন্মের জন্য ৬৭ দিন অপেক্ষা করেছে কর্তৃপক্ষ। সাপের ডিম যেন নষ্ট না হয়ে যায় সেকথা ভেবে ২০১৯ সালে পরীক্ষামূলকভাবে হাতে তৈরি ইনকিউবেটর প্রয়োগ শুরু হয় চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায়।

চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা ব্যবস্থাপনা কমিটির সচিব মো. রুহুল আমিন বলেন, চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা প্রাণী সংরক্ষণ, গবেষণা, শিক্ষা ও বিনোদনে ভূমিকা রাখছে। ২০১৯ সালের জুনে দেশে প্রথমবারের মতো চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় হাতে তৈরি ইনকিউবেটরে ২৫টি অজগর সাপের বাচ্চা ফুটানো হয়। যা পরবর্তীতে বন্য পরিবেশে অবমুক্ত করা হয়েছিল।

‘এর ধারাবাহিকতায় সদ্য জন্ম নেয়া সাপগুলোও সীতাকুণ্ড ইকোপার্কের গহীন বনে অবমুক্ত করা হয়েছে -যা মাইলফলক হয়ে থাকবে সাপ সংরক্ষণে চিড়িয়াখানার এ কার্যক্রম ।’