বিশেষ প্রতিনিধি *

প্রাণঘাতী করোনায় ভারতের পরিস্থিতি বিপর্যস্ত, দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যায় আগের সব রেকর্ডকে ছাপিয়ে গেছে দেশটি। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে ৬ হাজার ১৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। পৃথিবীর অন্য কোনো দেশে এর আগে একদিনে এত বেশি মানুষের মৃত্যু হয়নি। এর আগে একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু ভারতেই হয়েছিল। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে ৯৩ হাজার ৮৯৬ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

করোনা আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যানবিষয়ক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী, বিশ্বে এ পর্যন্ত করোনা রোগীর মোট সংখ্যা ১৭ কোটি ৫১ লাখ ৫৮ হাজার ৭৫০। এখন পর্যন্ত মারা গেছে ৩৭ লাখ ৭৬ হাজার ২৬১ জন। এ পর্যন্ত ভাইরাসটির সংক্রমণ থেকে ১৫ কোটি ৮৯ লাখ ৫৯ হাজার ১২৮ জন সুস্থ হলেও সক্রিয় রোগীর সংখ্যা এখনও ১ কোটি ২৪ লাখ ২৩ হাজার ৩৬১ জন।

বিশ্বে করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় সবার ওপরে থাকা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছে ১৪ হাজার ১৫৬ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৪৫২ জনের। এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩ কোটি ৪২ লাখ ৬৪ হাজার ৬৮২। যার মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ১৩ হাজার ৫০৭ জনের। চিকিৎসাধীন ৫৩ লাখ ৯৭ হাজার ১৩০ জন।

এর পরের স্থানেই অবস্থান করা এশিয়ার জনবহুল দেশ ভারতে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে দৈনিক সংক্রমণের সংখ্যা বিশ্বে সর্বোচ্চ। তবে গত ২৪ ঘণ্টাতেই প্রাণহানি ঘটেছে রেকর্ড ৬ হাজার ১৩৮ জনের। যা আগের ২৪ ঘণ্টায় ছিল ২ হাজার ২১৩ জন। এ সময়ে নতুন করে শনাক্ত হয়েছে আরও ৯৩ হাজার ৮৯৬ জন-যা আগের ২৪ ঘণ্টায় ছিল ৯১ হাজার ২২৭ জন। যাতে এ পর্যন্ত দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ৯১ লাখ ৮২ হাজার ৭২ জনে। আর মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ৫৯ হাজার ৬৯৫ জনের। চিকিৎসাধীন ১১ লাখ ৮৩ হাজার ৪৭৫ জন।

আর পড়ুন:   সফল বাইপাস সার্জারির পর ওবায়দুল কাদের- এর স্বাস্থ্যের উন্নতি

তালিকার তৃতীয় স্থানে থাকা দেশ ব্রাজিলে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৪৮৪ জনের এবং শনাক্ত হয়েছে ৮৭ হাজার ৯৭ জন। যা নিয়ে দেশটিতে এখন মোট মৃতের সংখ্যা ৪ লাখ ৭৯ হাজার ৭৯১ আর মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ৭১ লাখ ২৫ হাজার ৩৫৭। চিকিৎসাধীন ১০ লাখ ৪৮ হাজার ৭৫০ জন।

তালিকায় এরপরের স্থানে থাকা ফ্রান্স, তুরস্ক, রাশিয়া, যুক্তরাজ্য ও ইতালিতে সংক্রমণের সংখ্যা ৪০ থেকে ৬০ লাখের মধ্যে থাকলেও তুরস্ক বাদে অপর দেশগুলোতে মৃত্যু লাখ ছাড়িয়েছে। তবে সংক্রমণে ১৫ নম্বরে থাকা মেক্সিকোতে মৃত্যুর সংখ্যা ২ লাখ ২৯ হাজার ১শ ছাড়িয়েছে। আর ৩২ নম্বরে উঠে আসা বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত মৃত্যুর সংখ্যা ১৩ হাজার ছুঁইছুঁই।