৮ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ || ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

চাটগাঁর বাণী’র সম্পাদক মোহাম্মদ সেলিমসহ চার সাংবাদিক এবং একটি প্রামাণ্য অনুষ্ঠানকে এবছর দুর্নীতি বিষয়ক অনুসন্ধানী সাংবাদিকতায় পুরস্কৃত করা হয়। ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)  কর্তৃক ‘দুর্নীতি বিষয়ক অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা পুরস্কার২০২০’ আজ সোমবার (২৮সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টায় শুরু হওয়া প্রায় ৩ঘণ্টাব্যাপি অনুষ্ঠিত ভার্চুয়াল মিটিংয়ে এ পুরস্কার ঘোষণা করা হয়। এ অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনা করেন টিআইবির আউটরিচ অ্যান্ড কমিউনিকেশন বিভাগের ডেপুটি প্রোগ্রাম ম্যানেজার মোহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ। এসময় মুখ্য আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক, গবেষক ও গণমাধ্যম বিশ্লেষক অধ্যাপক আফসান চৌধুরী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের  অধ্যাপক ড. গীতিআরা নাসরিন, বৈশাখী টেলিভিশনের প্ল্যানিং কনস্যালটেন্ট জুলফিকার আলি মাণিক এবং টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন টিআইবির আউটরিচ অ্যান্ড কমিউনিকেশন বিভাগের পরিচালক শেখ মন্জুর-ই-আলম।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন টিআইবির উপদেষ্টা- নির্বাহী ব্যবস্থাপনা অধ্যাপক ড. সুমাইয়া খায়ের, এমআরডিআই এর নির্বাহী পরিচালক হাসিবুর রহমান, চ্যানেল টোয়েন্টি ফোরের নির্বাহী পরিচালক তালাত মামুন, এনটিভির বার্তা প্রধান জহিরুল আলম, মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের পরিচালক রিজওয়ান-উল-আলম, সিনিয়র সাংবাদিক শরিফুজ্জামান পিন্টু, এমআরডিআই এর অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা বিষয়ক হেল্প ডেস্কের পরিচালক ও সাবেক সাংবাদিক বদরুদ্দোজা বাবুসহ বিভিন্ন গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব ও সাংবাদিকবৃন্দ।

টিআইবির দুর্নীতিবিরোধী অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা পুরস্কার ২০২০ ঘোষণায় জানানো হয়- এবছর অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা পুরস্কারের জন্য সর্বমোট ৪৯টি প্রতিবেদন জমা পড়েছে। বিচারকদের যাচাই বাছাই শেষে প্রিন্ট মিডিয়া- জাতীয় ও আঞ্চলিক ক্যাটাগরি এবং ইলেকট্রনিক মিডিয়া- প্রতিবেদন ও প্রামাণ্য অনুষ্ঠান ক্যাটাগরিতে মোট চারজন সাংবাদিক এবং একটি প্রামাণ্য অনুষ্ঠানকে এবছর পুরস্কৃত করা হয়।

প্রিন্ট মিডিয়া আঞ্চলিক ক্যাটাগরিতে যৌথভাবে টিআইবির অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা পুরস্কার বিজয়ী হয়েছেন সাপ্তাহিক ‘চাটগাঁর বাণী’ পত্রিকার সম্পাদক মোহাম্মদ সেলিম। সাংবাদিক মোহাম্মদ সেলিম ২০১৯ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রামের সাপ্তাহিক ‘চাটগাঁর বাণী’তে ‘সীতাকুণ্ডে নির্বিচারে ধানিজমি, বসতভিটা, বনাঞ্চল ‘গ্রাস’ করছে বসুন্ধরা গ্রুপ’ শিরোনামে প্রকাশিত প্রতিবেদনের জন্য পুরস্কার বিজয়ী হন। তাঁর প্রতিবেদনে চট্টগ্রামের বাঁশবাড়িয়ার নোনাবিল এবং বোয়ালিকূল এলাকায় বসুন্ধরা গ্রুপের জোরপূর্বক সরকারি এবং ব্যক্তিমালিকানাধীন জমি দখলসহ নানা অনিয়ম, দুর্নীতির বিষয়গুলোকে   তুলে ধরেন তিনি। আর  যশোরের ‘দৈনিক গ্রামের কাগজ’- এর সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার ফয়সাল ইসলাম  এ পুরস্কার অর্জন করেন ।

আর পড়ুন:   করোনায় এ বছরেই আজ সর্বোচ্চ মৃত্যু

জাতীয় সংবাদপত্র বিভাগে পুরস্কার বিজয়ী হয়েছেন ‘দৈনিক কালের কন্ঠ’ পত্রিকার সিনিয়র রিপোর্টার আরিফুর রহমান। টেলিভিশন (প্রতিবেদন) বিভাগে বিজয়ী হয়েছেন এনটিভির সিনিয়র রিপোর্টার সফিক শাহিন

টেলিভিশন (প্রামাণ্য অনুষ্ঠান) বিভাগে বিজয়ী হয়েছে চ্যানেল টোয়েন্টি ফোরের প্রামাণ্য অনুষ্ঠান সার্চলাইট

উল্লেখ্য, আঞ্চলিক ও জাতীয় সংবাদপত্র বিভাগে বিজয়ীদের প্রত্যেককে সম্মাননাপত্র, ক্রেস্ট ও এক লক্ষ পঁচিশ হাজার টাকার চেক প্রদান করা হবে। আর বিজয়ী প্রামাণ্য অনুষ্ঠানকে সম্মাননাপত্র, ক্রেস্ট ও এক লক্ষ পঞ্চাশ হাজার টাকার চেক প্রদান করা হবে। এবছর বিচারকমণ্ডলীর বিবেচনায় জলবায়ু পরিবর্তন প্রকল্পে দুর্নীতি বিষয়ক জাতীয় সংবাদপত্র বিভাগে মানসম্মত কোনো প্রতিবেদন না পাওয়ায় এই বিভাগে কোনো পুরস্কার প্রদান করা হয় নি। এছাড়া টেলিভিশন প্রতিবেদনে ক্যামেরাপারসনের বিশেষ ভূমিকার জন্য বিচারকমণ্ডলীর কোন সুপারিশ না থাকায় এবছর কোনো ক্যামেরাপারসনকেও পুরস্কার দেয়া হয় নি। বিগত ২২ বছর ধরে টিআইবি ‘দুর্নীতি বিষয়ক অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা পুরস্কার’ প্রদান করছে।