৮ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ || ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

 

ঢাকা সদরঘাটের কাছে বুড়িগঙ্গার শ্যামবাজার এলাকায় ময়ূরী -২ লঞ্চের ধাক্কায় মর্নিংবার্ড ডুবে মৃত্যু বেড়ে ৩৩ জনে দাঁড়িয়েছে। এ ছাড়া আরও অনেক নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানা গেছে। কোস্ট গার্ড সদর দপ্তরের মিডিয়া কর্মকর্তা লেঃ কমান্ডার হায়াৎ ইবনে সিদ্দক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। নিহতদের মধ্যে ২ জন শিশু ৫ মহিলা ২৩ পুরুষ। একটি ভালো ফলাফল পাওয়ার আগ পর্যন্ত উদ্ধার অভিযান চলমান থাকবে বলেও জানান তিনি। আজ সোমবার (২৯ জুন) সকাল দশটার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, কেরানীগঞ্জের কালীগঞ্জের একটি ডকইয়ার্ড থেকে ময়ূরী দুই লঞ্চটি মেরামতের পর বুড়িগঙ্গা নদীতে নামানো হয়। ওই সময়ে মর্নিং বার্ড লঞ্চটি মুন্সিগঞ্জের কাটপট্টি ঘাট থেকে যাত্রী নিয়ে ঢাকায় ফিরছিল। ময়ূরী সরাসরি পেছনদিকে মর্নিংবার্ডকে ধাক্কা দিলে সাথে সাথে লঞ্চটি ডুবে যায়। এ সময় কয়েকজন যাত্রী দ্রুত সাঁতরে তীরে উঠতে পারলেও বাকিরা লঞ্চের মধ্যে আটকা পড়ে ডুবে যায়।

দেড় লাখ টাকা করে পাবে মৃতদের পরিবার

বুড়িগঙ্গা নদীতে লঞ্চডুবির ঘটনায় মৃত পরিবারকে দেড় লাখ টাকা করে দেয়া হবে।

এছাড়া লাশ দাফনের জন্য নগদ ১০ হাজার টাকা করে দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ।

তিনি জানান, এছাড়া সাত সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। সাত দিনের মধ্যে কমিটিকে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেয় হয়েছে।