৬ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ || ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সাতটি ল্যাবে ১০৯৩টি নমুনা পরীক্ষায় নতুন করে চট্টগ্রামে  করোনায় সংক্রমিত হলেন ২৪৬ জন ।এখন প্রতিদিনই নতুননতুন  দু ’শতাধিকের অধিক করোনায় আক্রান্ত হচ্ছে চট্টগ্রামে।পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যাও।

গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্তদের মধ্যে  নগরেই ২১২ জন , বাকি ৩৪ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা।  চট্টগ্রামে নতুন যোগ হওয়া শেভরন ল্যাবসহ

এই নিয়ে চট্টগ্রামে করোনা রোগীর সংখ্যা গিয়ে দাঁড়ালো ৭৪৪৬ জনে। একইসাথে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৩ জন করোনা পজিটিভ থেকে নেগেটিভ হয়েছেন । আর তাতে করে চট্টগ্রামে এখন পর্যন্ত করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা দাঁড়ালো ৯০৮ জনে। অন্যদিকে, করোনার সংক্রমিত হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন আরও ৫ জন, যাদের সবগুলোই নগরের। চট্টগ্রামে সর্বমোট  করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা এখন ১৬০।

আজ শুক্রবার (২৬ জুন) সকালে এসব তথ্য জানান চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি ।

তিনি জানান, চট্টগ্রামে নতুন যোগ হওয়া শেভরন ল্যাবসহ ছয়টি এবং কক্সবাজারের একটি ল্যাব মিলিয়ে সর্বমোট ১০৯৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষায় আরও ২৪৬ জনের শরীরে পাওয়া গেছে করোনা পজিটিভ । নতুন শনাক্তদের মধ্যে নগরের ২১২ জন এবং বিভিন্ন উপজেলার ৩৪ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় শনাক্ত হওয়াদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ল্যাবে। সেখানে সর্বাধিক ৩৩৩ জনের নমুনা পরীক্ষায় করোনা পজিটিভ মিলেছে ৮৩ জনের দেহে । যাদের মধ্যে ৭৮ জন নগরের ও ৫ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ল্যাবের পরে বেশি রোগী শনাক্ত হয় চট্টগ্রামের বেসরকারি করোনা পরীক্ষাকেন্দ্র ইম্পেরিয়াল হাসপাতালের ল্যাবে। সেখানে ১৪৪টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষায় ৬৬ জনের শরীরে করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়। যাদের মধ্যে ৫৯ জনই নগরের, বাকি ৭ জন  বিভিন্ন উপজেলার ।

চট্টগ্রামে নতুন যোগ হওয়া করোনা শনাক্তকরণ ল্যাব শেভরনে প্রথমদিনে ১০০টি নমুনা পরীক্ষা করে করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয় ৬২ জন। এদের মধ্যে নগরের  ৫৮  এবং ৪ জন বিভিন্ন উপজেলার।

আর পড়ুন:   পশ্চিম বাকলিয়ায় ডেঙ্গু সচেতনতায় ক্যাম্পেইন শুরু

ফৌজদারহাটের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি)-তে ২৭৭টি নমুনা পরীক্ষা  করে করোনা রোগী পাওয়া যায় মাত্র ১৭ জন। যাদের মধ্যে ১০ জন নগরের এবং বাকি ৭ জন বিভিন্ন উপজেলার।

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ইউনিভার্সিটির (সিভাসু) ল্যাবে ১০০ জনের নমুনা পরীক্ষা করে করোনাভাইরাসের জীবাণু পাওয়া গেছে মাত্র ৯ জনের শরীরে। যাদের ২ জন নগরের ও ৭ জন বিভিন্ন উপজেলার। আগেরদিনও সিভাসুতে সমাসংখ্যক নমুনা পরীক্ষায় ৯ জন রোগী পাওয়া গিয়েছিল।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ১৩১টি নমুনা পরীক্ষা করে ৮ জনের দেহে করোনভাইরাসের জীবাণু পাওয়া যায় । যাদের মধ্যে ৫ জন নগরের ও ৩ জন উপজেলার।

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ৮টি নমুনা পরীক্ষা  করে ১ জন উপজেলার করোনা রোগী শনাক্ত হয়।

উপজেলা পর্যায়ে নতুন করোনা শনাক্ত ৩৪ জনের মধ্যে সবচেয়ে বেশি হাটহাজারী উপজেলায়। সেখানে ৮ জনের দেহে করোনাভাইরাস পাওয়া যায়। এছাড়া চন্দনাইশে ৫ জন, সাতকানিয়ায় ৪ জন, আনোয়ারা ও বোয়ালখালীতে ৩ জন করে, পটিয়া, রাঙ্গুনিয়া ও সীতাকুণ্ডে ২ জন করে এবং লোহাগাড়া, বাঁশখালী, রাউজান, ফটিকছড়ি ও মিরসরাইয়ে ১ জন করে করোনা পজিটিভ  পাওয়া গেছে।