২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ || ৮ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ভারী বৃষ্টিতে চট্টগ্রাম নগরীর আকবর শাহ থানার ফিরোজ শাহ কলোনি ও পাঁচলাইশ থানার রহমান নগরে পৃথক পাহাড় ও দেয়াল ধসের ঘটনায় মা-মেয়েসহ ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার (১৩ অক্টোবর) রাত পৌনে দু’টার দিকে রহমান নগর ও আড়াইটার দিকে ফিরোজ শাহ কলোনিতে পৃথক এ দুর্ঘটনা দু’টি ঘটে।

চট্টগ্রাম ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের উপ-পরিচালক জসিম উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ।

নিহতরা হলেন ফিরোজশাহ কলোনীর বরিশাল ঘোনায় বাসিন্দা একই পরিবারের মা নূর জাহান (৪৫), তার আড়াই বছরের মেয়ে ফয়জুন্নেসা ও বিবি জোহরা (৭০)। এ ছাড়া নগরের পাঁচলাইশ থানার রহমান নগর এলাকায় পৃথক দেয়াল ধসের ঘটনায় নূরুল আলম নান্টু (৩০) নামে একজন নিহত হন। তিনি রহমান নগরের বাসিন্দা লালমিয়ার ছেলে।

চট্টগ্রাম ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স কন্ট্রোল রুমের কর্মকর্তা আনসার উদ্দিন  বলেন, ‘নগরে প্রায় একই সময়ে পৃথক দুটি দুর্ঘটনা ঘটেছে। রাত আড়াইটার দিকে ফিরোজশাহ কলোনীর বরিশাল ঘোনায় পাহাড় ধসে একই পরিবারের মা-মেয়েসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। খবর পেয়ে আগ্রাবাদ ও বন্দর ইউনিটের দুটি গাড়ি ঘটনাস্থলে পৌঁছে কাজ শুরু করে। এর আগে রাত পৌনে দুইটার দিকে পাঁচলাইশ থানার রহমান নগর এলাকায় দেয়াল ধসে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। ওই ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত পাঁচজন।’

পাঁচলাইশ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. তালেব বলেন, ‘হিলভিউ আবাসিকের রহমান নগর প্রান্তে পাহাড়ের ঢালে থাকা একটি দেয়াল ধসে নিচে বস্তির ওপর গিয়ে পড়েছে। এতে নান্টু নামে এক ব্যক্তি গুরুতর আহত হন। পরে তাকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ছাড়া দেয়াল ধসে পড়ার খবরে হুড়োহুড়িতে পাঁচজন আহত হয়েছেন।’

স্থানীয় এক বাসিন্দা রশিদ আহমেদ বলেন, ‘লাগাতার কয়েকদিনের বৃষ্টিতে পাহাড়ের মাটি নরম হয়ে গিয়েছিল। রাতে ভারী বৃষ্টিপাতের সময় রহমান নগরের একটি বস্তির কয়েকটি ঘরের ওপর পাশের হিলভিউ আবাসিকের একটি দেয়াল ধসে পড়ে। এ সময় দেয়ালের নিচে চাপা পড়ে একজন মারা যান।’

আর পড়ুন:   লকডাউনের সকালে বৈলতলীতে ট্রাক চাপায় ৬ জনের মৃত্যু