১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ || ১লা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

 

বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসা বিষয়ে নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট।

বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি রাজিক আল জলিল সমন্বয়ে গঠিত একটি হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ  বৃহস্পতিবার(৪অক্টোবর) এ আদেশ দেয়।

বিশেষায়িত হাসপাতালে কারাবন্দি খালেদা জিয়ার চিকিৎসার নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে দায়ের করা রিটের ওপর আজ অদেশ দেয় আদালত।

আদেশে খালেদা জিয়া নিজের পছন্দমতো চিকিৎসকদের দ্বারা নিজের চিকিৎসা করাতে পারবেন মর্মে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। তবে চিকিৎসা করাতে হবে বিএসএমএমইউ-তে। তাকে দ্রুত ভর্তি করে চিকিৎসা শুরু করতে বলা হয়েছে। স্বাচিপ এবং ড্যাব-এর সঙ্গে জড়িত নন খালেদা জিয়ার পছন্দসই এমন তিনজন চিকিৎসক সমন্বয়ে নতুন করে পাঁচ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড গঠন করার নির্দেশও দেয় আদালত।

হাইকোর্টের আদেশ অনুযায়ী, বিএসএমএমইউ’র ইন্টারনাল মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক আব্দুল জলিল চৌধুরী এবং ফিজিকাল মেডিসিন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক বদরুন্নেসা আহমেদ বোর্ডে থাকবেন। অপর তিনজন হবে খালেদা জিয়ার পছন্দের। খালেদা জিয়া তার পছন্দমত ফিজিওথেরাপিস্ট, গাইনোলজিস্ট ও টেকনিশিয়ান নিতে পারবেন। বোর্ডের অনুমতি সাপেক্ষে বাইরে থেকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক আনতে পারবেন।

আদালতে আজ খালেদা জিয়ার পক্ষে ছিলেন সিনিয়র আইনজীবী এজে মোহাম্মদ আলী, জয়নুল আবেদীন, ব্যারিস্টার এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দিয়ে রায় দেয় বিচারিক আদালত। রায় ঘোষণার পরপরই তাকে রাজধানীর পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। বর্তমানে তিনি সেখানেই বন্দি থেকে সাজা ভোগ করছেন।