১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ || ১লা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বিমসটেকের চতুর্থ শীর্ষ সম্মেলন শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নেপাল থেকে দেশে ফিরেছেন। শুক্রবার (৩১ আগস্ট) বেলা ২টা ৩৫ মিনিটে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইটে প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীরা কাঠমান্ডু থেকে ঢাকায় পৌঁছান।

তিনি সামিট অব দ্য বে অব বেঙ্গল ইনিশিয়েটিভ ফর মাল্টিসেক্টরাল টেকনিক্যাল অ্যান্ড ইকোনমিক কোঅপারেশনের (বিমসটেক) চতুর্থ সম্মেলনে যোগ দিতে গত বৃহস্পতিবার নেপাল যান।

এর আগে সকালে সদস্য সাত দেশের নেতৃবৃন্দসহ প্রধানমন্ত্রী বিমসটেকের সমাপনী অধিবেশনে যোগদান করেন।

বিমসটেক সম্মেলনে ভাষণে শেখ হাসিনা মুক্তবাণিজ্য অঞ্চল সৃষ্টি, বিনিয়োগ ও জ্বালানি খাতে যৌথ প্রচেষ্টা, জনগণের মধ্যে যোগাযোগ এবং অর্থায়ন প্রক্রিয়া গড়ে তোলার মাধ্যমে বিমসটেক ফোরামে সহযোগিতা সম্প্রসারণের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন।

সম্মেলনের ফাঁকে প্রধানমন্ত্রী ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা অলির সঙ্গে বৈঠক করেন।

প্রধানমন্ত্রী এবং বিমসটেক নেতৃবৃন্দ নেপালের রাষ্ট্রপতি বিদ্যা দেবী ভাণ্ডারির সঙ্গেও সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।

এই উপআঞ্চলিক সংস্থাটি ১৯৯৭ সালের ৬ জুন ব্যাংকক ঘোষণার মধ্য দিয়ে গঠিত হয়।

এই জোটের সদস্য দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ, ভুটান, ভারত, নেপাল ও শ্রীলংকা এ পাঁচটি দক্ষিণ এশিয়া এবং মিয়ানমার ও থাইল্যান্ড এ দুটি হচ্ছে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশ।