[bangla_date] || [english_date]

সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি *

প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছেন সীতাকুণ্ড মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামাল উদ্দিন

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে সামাজিক সংগঠন আলোকিত যুব সংঘের উদ্যোগে স্থাপন করা হয়েছে ২৫টি ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা। উপজেলার কেদারখিল গ্রামে স্থানীয় জনসাধারণের সহযোগিতায় স্থাপিত এসব ক্যামেরা এলাকায় নানা অপরাধ ঠেকাবে।

বুধবার (২৭ মার্চ) আলোকিত যুব সংঘের আয়োজিত ইফতার, দোয়া মাহফিল ও ক্যামেরা স্থাপন কাজের উদ্বোধন হয়েছে। এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সীতাকুণ্ড মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামাল উদ্দিন। এর আগে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন সৈয়দপুর ইউপি চেয়ারম্যান এইচ এম তাজুল ইসলাম নিজামি। বিশেষ অতিথি উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহাবুদ্দিন বাদল, খোনকার বাড়ি জামে মসজিদের সভাপতি মো. সিরাজুল ইসলাম, সাংবাদিক শেখ সালাউদ্দিন, আবুল খায়ের ও মডার্ন হাসপাতালের পরিচালক সাইফুর রহমান শাকিল।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আলোকিত যুব সংঘকে এবং স্থানীয় এলাকাবাসীকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে সীতাকুণ্ড মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. কামাল উদ্দিন বলেন, ‘আমি সীতাকুণ্ড থানায় যোগদান করার পর সৌভাগ্য নাকি দুর্ভাগ্য জানিনা কয়েকটি হত্যা এবং কয়েকটি ডাকাতির ঘটনা ঘটে। এখন পর্যন্ত আমরা সবগুলো চুরি এবং ডাকাতির ঘটনায় জড়িতদের শনাক্ত এবং বেশিরভাগ অপরাধীদের আইনের আওতায় আনতে সক্ষম হয়েছি। ডাকাতি বা চুরি হলেও অনেকে থানায় অভিযোগ করতে যায় না। অভিযোগ না করলে আমরা জানবো কোত্থেকে, আর না জানলে ব্যবস্থা নিব কীভাবে?

সীতাকুণ্ডে কোনো ডাকাত থাকতে পারবে না জানিয়ে তিনি বলেন, হয় ডাকাতি ছাড়বে না হলে সীতাকুণ্ড ছাড়বে। আর যদি ডাকাত দমন করতে না পারি আমি চলে যাব সীতাকুণ্ড ছেড়ে।

আলোকিত যুব সংঘের চেয়ারম্যান শেখ সাইফুল ইসলাম বলেন, গত দুই মাস আগে কিছুদিন চুরি-ডাকাতির প্রকোপ দেখা দেওয়ায় আমরা এলাকাবাসীরা রাত জেগে গ্রাম পাহারা দেওয়া শুরু করি। কিন্তু এতে করে কয়েকদিন পরে দেখা যায় বেশিরভাগ মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়ছে। তাই আলোকিত যুব সংঘের উদ্যোগে এবং এলাকাবাসীর সার্বিক সহযোগিতায় উত্তর কেদারখিল গ্রামে ৫০ টি সিসি ক্যামেরা স্থাপনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ইতিমধ্যে ২৫টি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে বাকি ক্যামেরাগুলো শিগগির স্থাপন করা হবে।