[bangla_date] || [english_date]

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র আলহাজ্ব মোহাম্মদ মনজুর আলম বড়পীর সৈয়দ আবদুল কাদের জিলানী (র:) এর ১৮তম বংশধর হযরত শেখ সৈয়দ আফিফ উদ্দিন আল জিলানীর সম্মানে  দোয়া ও ইফতার মাহফিলের আয়োজন করেন।

মঙ্গলবার (২৬ মার্চ) এইচ.এম ভবনে এতিম, মাদ্রাসার শিক্ষার্থী, আলেম ওলেমা, শিক্ষক, ভক্ত আশেকানসহ নান শ্রেণীর রোজাদারদের নিয়ে এ দোয়া ও ইফতার মাহফিলে হাজারের অধিক রোজাদার অংশগ্রহণ করেন। ইফতারপূর্বে খতমে কোরআনে পাক, ধর্মীয় আলোচনা, দোয়া মাহফিল ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। ইরাকের বাগদাদ থেকে আগত শেখ সৈয়দ আফিফ উদ্দিন আল মানসুর আল জিলানীকে  তাঁকে স্বাগত জানান সাবেক মেয়র মোহাম্মদ মনজুর আলম, তাহের গ্রুপের চেয়ারম্যান এম এ তাহের, মোস্তফা হাকিম গ্রুপের পরিচালক আলহাজ্ব মোহাম্মদ নিজামুল আলম, আলহাজ্ব মোহাম্মদ সরোয়ার আলম, আলহাজ্ব মোহাম্মদ ফারুক আজম, আলহাজ্ব মোহাম্মদ সাইফুল আলম, আলহাজ্ব মোহাম্মদ সাহিদুল আলম। এ সময় মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা ফুলের পাপড়ি ছিটিয়ে এবং ফুলের মালা পড়িয়ে বিশিষ্ট এ মেহমানকে বরণ করেন। ইফতারপূর্ব ধর্মীয় আলোচনায় সভাপতিত্ব করেন সাবেক মেয়র মোহাম্মদ মনজুর আলম। এতে প্রধান মেহমানের বক্তব্য দেন শেখ সৈয়দ আফিফ উদ্দিন আল মনসুর আল জিলানী। অন্যদের মধ্যে শেখ সৈয়দ আবদুর রহমান আল জিলানী আল বাগদাদী, পিএইচপি গ্রুপের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সুফী মিজানুর রহমান, মোস্তফা হাকিম গ্রুপের পরিচালক, সমাজে সেবক আলহাজ্ব মোহাম্মদ সরোয়ার আলম আলোচনা করেন। আলোচনায় শেখ সৈয়দ আফিফ উদ্দিন আল মনসুর আল জিলানী পবিত্র রমজানের তাৎপর্য ও গুরুত্ব পবিত্র কোরআন ও হাদিসের আলোকে তুলে ধরেন। তিনি সকলকে ফরজ, সুন্নত নিয়মিত আদায়, মানুষের খেদমত এবং আল্লাহ, রাসুল ও অলি আউলিয়াদের পথ অনুসরণ করে জীবন-জীবিকা নির্বাহ করার পরামর্শ দেন। সভাপতির বক্তব্যে সাবেক মনজুর আলম বলেন, ইমানদার মুসলমানদের দায়িত্ব হলো আর্তমানবতার কল্যাণ করা। আমরা ২টি ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে ১০২টি প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলে মানব কল্যাণ করার চেষ্টা করে যাচ্ছি। মানব সেবাই আমাদের ব্রত। তিনি বলেন, আল্লাহর অলি-আউলিয়াদের খেদমতে আমরা নিয়োজিত আছি। আমাদের সকল কার্যক্রম আল্লাহ ও রাসুলের সন্তোষ্ঠি বিধানের জন্য। ইফতারপূর্বক মোনাজাত পরিচালনা করেন শেখ সৈয়দ আফিফ উদ্দিন আল মনসুর আল জিলানী।