২৫শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ || ৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

আজমল হোসেন, মীরসরাই* আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মীরসরাইয়ে ভাইস চেয়ারম্যান পদে দলীয় প্রার্থী হতে চান করেরহাট ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সমাজসেবক মো. শেখ সেলিম। তিনি দীর্ঘ সময় ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে জড়িত থাকার পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক ও ব্যবসায়িক সংগঠনের সাথেও জড়িত রয়েছেন। স্বচ্ছ রাজনৈতিক ব্যক্তি হিসেবে উপজেলাজুড়ে তাঁর ব্যাপক পরিচিতি ও জনপ্রিয়তা রয়েছে। দলীয় সমর্থন পাওয়ার ব্যাপারে তিনি শতভাগ আশাবাদী।

সাবেক সফল মন্ত্রী ৭বারের নির্বাচিত এমপি ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের একান্ত আস্থাভাজন এ আওয়ামী লীগ নেতা পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ হিসেবে উপজেলাজুড়ে সুনাম রয়েছে। ব্যক্তিগত জীবনে অত্যন্ত সদালাপী এ মানুষটি জনপ্রতিনিধি না হয়েও দীর্ঘ সময় ধরে নিরবে সমাজ সেবা করে যাচ্ছেন। অন্যায় ও মাদকের সাথে কখনো আপোষ করেননি তিনি।
বঙ্গবন্ধুর আর্দশে দীক্ষিত হয়ে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পড়াশোনাকালীন ছাত্রলীগের রাজনীতির হাতেখড়ি হয়। স্কুল জীবন থেকে প্রিয় নেতা ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের রাজনৈতিক আদর্শ তাকে অনুপ্রাণিত করে। তিনি ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের একজন আস্থাভাজন কর্মী হিসেবে তাঁর সানিধ্যে গিয়ে প্রিয় নেতার সকল প্রকার সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের চেষ্টা করেছেন। অনেকেই অনেক সময় বিভিন্ন বাধা সৃষ্টি করেও প্রিয় নেতার আদর্শ থেকে বিচ্যুতি ঘটাতে পারেনি।
শেখ সেলিম বলেন, যতদিন বেঁচে থাকবো প্রিয় নেতার আদর্শে রাজনীতি ও সমাজসেবা করে যাবো। এজন্য সকলের সহযোগিতা ও দোয়া চাই।

সাবেক মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি থেকে পুরস্কার নিচ্ছেন মো. শেখ সেলিম

মো. শেখ সেলিম ১৯৬৬ সালের ২৮ আগস্ট করেরহাট ইউনিয়নের পশ্চিম জোয়ার গ্রামের এলাহী বকস্ ভূঁইয়া বাড়িতে (প্রকাশ শেখ বাঘাই বাড়ি) জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম মৃত হাজ্বী মো. শফি। বর্তমানে একই ইউনিয়নে ছত্তরুয়া গ্রামে বাড়ি করেছেন। নিজগ্রামে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পাঠ চুকিয়ে করেরহাট কেএম উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাশ করেন। নিজামপুর কলেজ থেকে এইচএসসি ও বিকম পাশ করেন।
ছাত্রজীবন থেকে রাজনীতির সাথে জড়িতে ছিলেন শেখ সেলিম। করেরহাট ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন ৭ বছর। নিজামপুর কলেজে পড়াশোনাকালীন ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে সক্রিয়ভাবে জড়িত ছিলেন। দীর্ঘসময় করেরহাট ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য থাকার পর সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়ে অধ্যবদি সেই দায়িত্ব পালন করছেন।

তিনি উপজেলার অন্যতম সামাজিক সংগঠন উদয়ন ক্লাবের একাধিকবার সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে উদয়ন ক্লাবের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। অভিযান ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন। করেরহাট জনকল্যাণ বহুমুখী সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক, বৃহত্তর ফেনী নদী বালু ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক, উপজেলার সার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি, ফরেস্ট অফিস কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের সভাপতির দায়িত্বসহ বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক, শিক্ষা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের সাথে জড়িত রয়েছেন। তাঁর মামা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার মরহুম মোশাররফ হোসেন বিকম। তাঁর পিতা মো. শফি ব্রিটিশ আর্মিতে কর্মরত ছিলেন।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে অংশ গ্রহণের বিষয়ে শেখ সেলিম বলেন, মীরসরাই মাটি ও মানুষের বন্ধু, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার একান্ত আস্থাভাজন সাবেক সফলমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের নেতৃত্বে উন্নয়নের ধারায় সামিল হতে আগামী উপজেলা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে চাই। সারাজীবন মানুষের পাশে ছিলাম। আগামীতে আরো বৃহৎ পরিসরে জনগণের সেবা করতে ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। উপজেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বেশ সাড়া পাচ্ছি। দলীয় মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচনে প্রার্থী হবো। দলীয় মনোনয়নের ব্যাপারে শেখ সেলিম বলেন, আমার জন্ম আওয়ামী পরিবারে। সারাজীবন আওয়ামী লীগের জন্য নিজেকে বিলিয়ে দিয়েছি। আজীবন আওয়ামী লীগের সাথে থাকবো। আমার বিশ্বাস সব কিছু বিবেচনা করে দল আমাকে মনোনয়ন দেবে ইনশাআল্লাহ।