[bangla_date] || [english_date]

নিজস্ব প্রতিবেদক *

ময়মনসিংহ, কুমিল্লা সিটি করপোরেশন ও ৬টি পৌরসভাসহ স্থানীয় সরকারের ২৩১টি প্রতিষ্ঠানের নির্বাচন আজ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ।

শনিবার (৯ মার্চ) সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ইতোমধ্যে ভোট উপলক্ষে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন।

এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ বলেন, ২৩৩টি প্রতিষ্ঠানের নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করা হলেও দুটিতে নির্বাচন হচ্ছে না। সিটি করপোরেশন, পৌরসভা ও জেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ হবে ইভিএমে।

নির্বাচন কমিশন সূত্র বলছে, ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন সাধারণ নির্বাচন ও কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের মেয়রের শূন্য পদে উপনির্বাচন এবং ৩টি পৌরসভার (পটুয়াখালী পৌরসভা, জামালপুর জেলার বকশীগঞ্জ পৌরসভা এবং বরগুনা জেলার আমতলী পৌরসভা) সাধারণ নির্বাচনসহ ৩টি পৌরসভার (ময়মনসিংহ জেলার ত্রিশাল পৌরসভা, মুন্সিগঞ্জ পৌরসভা এবং বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ পৌরসভার মেয়রের শূন্য পদ) মেয়রের শূন্য পদের উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ ছাড়াও স্থানীয় সরকারে বিভিন্ন উপনির্বাচন নিয়ে ৯ মার্চ মোট ২৩১টি নির্বাচনের ভোটগ্রহণ করা হবে।

২ সিটি নির্বাচনেই ভোটকেন্দ্রের নিরাপত্তা নিশ্চিতে সাধারণ কেন্দ্রে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীগুলোর ১৬ জনের ফোর্স ও ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রে ১৭ জনের ফোর্স মোতায়েন থাকছে।

এ দিকে পৌরসভাগুলোয় ১২ থেকে ১৪ জনের ও ইউপির নির্বাচনগুলোতে ২২ জনের ফোর্স নিয়োজিত করেছে ইসি।

নির্বাচন নিয়ে নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর বলেছেন, পরিস্থিতি ভালো আছে। তবে নিয়ন্ত্রণের বাইরে গেলে ভোট বন্ধ করে দেওয়া হবে।

২০২৩ সালের ১৩ ডিসেম্বর কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের মেয়র আরফানুল হক রিফাত সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এরপর ১৮ ডিসেম্বর মেয়রের পদ শূন্য ঘোষণা করা হয়। পরে গত ২২ জানুয়ারি মেয়র পদে উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

কুমিল্লা সিটি করপোরেশনে মেয়র পদের উপনির্বাচনে মোট ভোটার ২ লাখ ৪২ হাজার ৪৫৮। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ১৮ হাজার ১৮২, নারী ভোটার এক লাখ ২৪ হাজার ২৭৪ এবং হিজড়া ২ জন। ভোটকেন্দ্র ১০৫টি ও ভোটকক্ষ ৬৪০টি।

কুমিল্লায় সিটি করপোরেশন উপনির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৪ জন। বিএনপি থেকে বহিষ্কার ২ নেতা সাবেক মেয়র মনিরুল হক সাক্কু (ঘড়ি) এবং স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক নেতা নিজামুদ্দিন কায়সার (ঘোড়া প্রতীক) নিয়ে নির্বাচন করছেন। আর আওয়ামী লীগ মহানগর সাংগঠনিক সম্পাদক তাহসিন বাহার (বাস) এবং নগর আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা নূর-উর তানিম (হাতি প্রতীক) প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নেমেছেন।

ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনে মোট ভোটার ৩ লাখ ৩৬ হাজার ৪৯৬ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৬৩ হাজার ৮৭২, নারী ভোটার ১ লাখ ৭২ হাজার ৬১৫ এবং হিজড়া ৯ জন। এ সিটিতে সাধারণ ওয়ার্ড ৩৩টি, সংরক্ষিত ওয়ার্ড ১১টি। ভোটকেন্দ্র ১২৮টি ও ভোটকক্ষ ৯৯০টি।

এখানে মেয়র পদে প্রার্থীদের মধ্যে দলীয় প্রার্থী মাত্র একজন। জাতীয় পার্টির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম স্বপন মণ্ডল লাঙ্গল প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। দলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগে কাউকে মনোনয়ন না দিয়ে প্রার্থিতা উন্মুক্ত রেখেছে। সিটিতে টেবিল ঘড়ি নিয়ে লড়াইয়ে আছেন বর্তমান মেয়র ইকরামুল হক, ঘোড়া প্রতীকে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এহতেশামুল আলম, হাতি মার্কায় জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা সাদেকুল হক খান মিল্কী ও হরিণ প্রতীক নিয়ে কৃষক লীগের সাবেক সদস্য রেজাউল হক রেজা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন।

ময়মনসিংহ সিটিতে ৩৩টি সাধারণ ওয়ার্ডে ১৪৯ জন ও ১১টি সংরক্ষিত ওয়ার্ড কমিশনার পদে ৬৯ জন লড়ছেন।