[bangla_date] || [english_date]

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রার্থী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল’র সমর্থনে আন্দরকিল্লা ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আয়োজিত কর্মী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার( ৯ ডিসেম্বর) আন্দরকিল্লাস্থ আব্দুল আজিজ মিলনায়তনে সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত হয় এ সমাবেশ।

আন্দরকিল্লা ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. ইকবাল হাসান এর সভাপতিত্বে, সাধারণ সম্পাদক লায়ন আশীষ কুমার ভট্টাচার্য্য’র সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী। প্রধান বক্তা ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা নঈম উদ্দিন চৌধুরী, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক কাউন্সিলর জহরলাল হাজারী।

আরো উপস্থিত ছিলেন থানা আওয়ামী লীগের এম এ মোনায়েম, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মঞ্জুর হোসেন, মোকতার আহমেদ, দিদারুল আলম, এস.এম আলমগীর, রতন আচার্য্য, সাইফুল আলম সাইফু, নুরুল আমিন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন শাহ্, খোরশেদ আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক তারেক হায়দার বাবু, সেকান্দর হোসেন, প্রকাশ দাশ অসিত, সলিল চৌধুরী, আবুল কালাম আজাদ, ইউনিট আওয়ামী লীগের সভাপতি রতন কান্তি দে, জসিম উদ্দিন আরমান, মো. জসিম উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক এস.এ মুরাদ, অজয় চৌধুরী, বিপ্লব দাশ প্রতাপ প্রমুখ। প্রধান অতিথি মাহতাব উদ্দিন বলেন, ‘নৌকা স্বাধীনতা দিয়েছে, নৌকা উন্নয়ন দিয়েছে। বাংলার জনগণ বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নৌকায় ভোট দিয়েছিলেন বলেই আজকে উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা পেয়েছে। এই নৌকাই দেবে ২০৪১ সালের স্মার্ট বাংলাদেশ। আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম-৯ আসনে নৌকার প্রার্থী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলকে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে বিজয়ী করে জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ তৈরিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে। আগামী নির্বাচনের সময় একটা বিষয়ে সবাইকে নজর রাখতে হবে, বিএনপি-জামাত চক্র এদেশে নির্বাচন হতে দিতে চায় না। দেশে একটি অস্বাভাবিক পরিস্থিতির সৃষ্টি করে দেশের উন্নয়নকে ব্যাহত করতে চায়। বাংলার জনগণ সেই সুযোগ আর তাদের দিবে না। প্রতিটি এলাকায় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা মানুষের নিরাপত্তা রক্ষায় সর্বদা প্রস্তুত আছেন।