১০ই আশ্বিন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ || ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

তৃতীয়বারের মত জাতীয় যুব কমিশন গঠন করেছে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি। পরে কমিশনের প্রথম সভায় ৩য় জাতীয় কমিশনের যুবসদস্যদের প্রত্যক্ষ ভোটে চেয়ার এবং ভাইস চেয়ার নির্বাচন করা হয়।

দেশের ৮টি বিভাগের মোট ১১ যুব সদস্যের উপস্থিতিতে  ৫ সেপ্টেম্বর সোসাইটির জাতীয় সদর দপ্তরের প্রশিক্ষণ কক্ষে ৩য় জাতীয় কমিশন গঠন করা হয়। এসময় বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) এটিএম আবদুল ওয়াহ্‌হাব, সোসাইটির ব্যবস্থাপনা পর্ষদের সম্মানিত সদস্যবৃন্দ, মহাসচিব কাজী শফিকুল আজম, আইএফআরসি’র হেড অফ ডেলিগেশন সঞ্জীব কাফলে সহ সোসইটির বিভিন্ন বিভাগের পরিচালক, উপ-পরিচালক ও কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। কমিশন গঠনের পর সোসাইটির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) এটিএম আবদুল ওয়াহ্‌হাব বলেন, “বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি একটি মানবিক স্বেচ্ছাসেবী আন্তর্জাতিক সংস্থা, যার মূল চালিকাশক্তি হলো যুব স্বেচ্ছাসেবকরা। স্বেচ্ছাসেবকদের দক্ষতা বৃদ্ধি, নেতৃত্ব, সুশৃঙ্খলভাবে কর্ম সম্পাদন, পরিকল্পনা প্রনয়ণ, সোসাইটির ব্যবস্থাপনা পর্ষদ সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে যুবদের কার্যক্রম তুলে ধরা সহ আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বাংলাদেশের কার্যক্রমকে তুলে ধরা এবং স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে যুব রেড ক্রিসেন্ট কার্যক্রমকে যুগোপযোগী ভাবে বৃদ্ধি করার লক্ষ্যে এই যুব কমিশন গঠন করা হয়েছে।”

দেশের ৮টি বিভাগের মধ্যে থেকে ঢাকা, চট্টগ্রাম ও খুলনা থেকে ২ জন করে এবং রংপুর, রাজশাহী, বরিশাল, ময়মনসিংহ ও সিলেট থেকে ১ জন করে মোট ১১ জন যুব সদস্যদেরকে নিয়ে তৃতীয়বারের মত জাতীয় এই যুব কমিশন গঠন করা হয়েছে। যুব কমিশন সদস্য হওয়ার জন্য সারাদেশ থেকে সর্বমোট ৪২ জন আবেদন করেন, যথাযথ প্রকিয়া শেষে ১১ জন উপনীত হয়।

রেড ক্রিসেন্টের তৃতীয় জাতীয় যুব কমিশনের ১ম সভায় ১১ সদস্যের প্রত্যেকের প্রত্যক্ষ ভোটে চেয়ার এবং ভাইস চেয়ার নির্বাচন করা হয়। চেয়ার হিসেবে নির্বাচিত হন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির জাতীয় সদর দপ্তরের যুব সদস্য মো. জাহিদুল ইসলাম এবং ভাইস চেয়র নির্বাচিত হন খুলনা জেলা ইউনিটের যুব সদস্য মোস্তাকিম বিল্লাহ মুহিত। জাতীয় কমিশনের অন্যান্য সদস্যরা হলেন- মাগুরা জেলা ইউনিটের মো. বরকত উল্লাহ, রাঙামাটি জেলা ইউনিটের মুমতাহেনা চৌধুরী, নোয়াখালী জেলা ইউনিটের ফারহানা হায়দার, নারায়ণগঞ্জ জেলা ইউনিটের জয় দত্ত, রংপুর জেলা ইউনিটের মো. রাব্বী ইসলাম, বগুরা জেলা ইউনিটের ধ্রুবসারথি গোস্বামী অর্ঘ্য, বরগুনা জেলা ইউনিটের মো. মুসা, সিলেট জেলা ইউনিটের পলাশ গুণ এবং নেত্রকোণা জেলা ইউনিটের মো. মনিরুল হাসান।