১০ই আশ্বিন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ || ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালের কার্যনির্বাহী কমিটির প্রেসিডেন্ট, চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল মেডিকেল কলেজ গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান ও মেডিকেল কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের অবস এন্ড গাইনী বিভাগের সাবেক বিভাগীয় প্রধান দেশের খ্যাতনামা গাইনোকোলোজিস্ট প্রফেসর ডা. এম এ তাহের খান এর স্মরণে এক শোকসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৮জুলাই) চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর এ এস এম মোস্তাক আহমেদ এর সভাপতিত্বে হাসপাতালের লেকচার গ্যালারীতে এসভাটি অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় বক্তব্য রাখেন হাসপাতালের কার্যনির্বাহী কমিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট সৈয়দ মোহাম্মদ মোরশেদ হোসেন, জেনারেল সেক্রেটারী  মোহাম্মদ রেজাউল করিম আজাদ, ভাইস প্রেসিডেন্ট ইঞ্জিনিয়ার মো. জাবেদ আবছার চৌধুরী, জয়েন্ট জেনারেল সেক্রেটারী  আজিজ নাজিমউদ্দিন, ট্রেজারার অধ্যক্ষ ড. লায়ন মোহাম্মদ সানাউল্লাহ, জয়েন্ট ট্রেজারার  এস এম কুতুব উদ্দিন, স্পোর্টস এন্ড কালচারাল সেক্রেটারী মো. আহসান উল্লাহ, কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও ওজিএসবি কেন্দ্রিয় কমিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রফেসর ডা. কামরুন নেসা রুনা, কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য জনাব মো. হারুন ইউসুফ,  এ এস এম জাফর, পরিচালক (প্রশাসন) ডা. মো.নূরুল হক, ভাইস প্রিন্সিপাল প্রফেসর অসীম কুমার বড়ুয়া, ইনষ্টিটিউট অব চাইল্ড হেলথ এর পরিচালক প্রফেসর ওয়াজির আহমেদ, অবস এন্ড গাইনী বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ডা. সিরাজুন নুর রোজী, প্রফেসর তাহেরা বেগম, কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর জালাল উদ্দিন, প্রফেসর শাহেদা খানম, প্রফেসর নাহিদ সুলতানা, প্রফেসর ডা. আ ম ম মিনহাজুর রহমান, প্রফেসর ডা. আবুল কাশেম, প্রফেসর অলক নন্দী, উপ-পরিচালক (প্রশাসন)  মোহাম্মদ মোশাররফ হোসাইন, ডা. রজত শংকর রায় বিশ্বাস, ডা. মঈন উদ্দিন মাহমুদ ইলিয়াস, ডা. মাহাদী হাসান রাসেল, শামসুন নাহার খান নার্সিং কলেজের প্রিন্সিপাল স্মৃতি রানী ঘোষ, চমাশিহা নার্সিং ইনষ্টিটিউটের প্রিন্সিপাল ঝিনু রানী দাশ ও নার্সিং সুপারিনটেনডেন্ট রনজু কনা পাল প্রমুখ। মরহুম প্রফেসর এম এ তাহের খান এর  পরিবারের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন তাঁর বড় মেয়ে ডক্টর নাদিয়া তাহের খান ও রিজওয়ানুল হক। সভায় বক্তারা মরহুম প্রফেসর এম এ তাহের খানের বর্ণাঢ্য কর্মময় জীবনের উপর স্মৃতিচারণ করেন।

বক্তারা বলেন, প্রফেসর এম এ তাহের খান ছিলেন বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী একজন মানুষ। তিনি দেশের আধুনিক অবসট্রেটিক্স এন্ড গাইনোকোলজির প্রবক্তা। তিনি ছিলেন একজন কিংবদন্তী চিকিৎসক এবং শিক্ষকদের শিক্ষক। একজন শিক্ষক ও ট্রেইনার হিসেবে তিনি ছিলেন অতুলনীয়। প্রফেসর এম এ তাহের খান ছিলেন একজন আপাদমস্তক ভালো মানুষ, বিনয়ী, পরহেজগার ও ধর্মভীরু। তিনি অবৈতনিকভাবে ৫ বছর মেডিকেল কলেজের প্রিন্সিপাল এর এই দায়িত্ব পালন করেছেন। তাঁর দক্ষ নির্দেশনা ও পরিচালনায় চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল মেডিকেল কলেজ আজ দেশের অন্যতম সেরা বেসরকারী মেডিকেল কলেজ হিসেবে সমাদৃত। প্রফেসর এম এ তাহের খান ২০০০ সালের ৩১শে ডিসেম্বর চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের অবস এন্ড গাইনী বিভাগের বিভাগীয় প্রধান হিসেবে সরকারি চাকুরী থেকে অবসর গ্রহণ করেন। মূলতঃ এরপর থেকেই তিনি চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালের সাথে জড়িত হয়ে হন। তিনি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের শিক্ষক সমিতির প্রেসিডেন্ট, বিএমএ চট্টগ্রামের ভাইস প্রেসিডেন্ট, ওজিএসবি চট্টগ্রাম শাখার প্রেসিডেন্ট ও ওজিএসবি কেন্দ্রিয় কমিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি হাসপাতালের সফলভাবে প্রেসিডেন্ট এর দায়িত্ব পালন করেন। তাঁর এই মৃত্যু চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল ও দেশের চিকিৎসক সমাজের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি। এই ক্ষতি সহজে পূরণ হবার নয়। সভাতে মরহুম প্রফেসর এম এ তাহের খানের মৃত্যুতে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন হাফেজ মো, জসিম উদ্দিন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন হাসপাতালের উপ-পরিচালক (মেডিকেল এ্যাফেয়ার্স) ডা. এ কে এম আশরাফুল করিম।