[bangla_date] || [english_date]

নিজস্ব প্রতিবেদক *

প্রফেসর ড. তাহমিনা বেগম

জাতীয় শিক্ষা ব্যবস্থাপনা একাডেমির (নায়েম) মহাপরিচালক পদে আসীন হলেন এ প্রতিষ্ঠানের প্রশিক্ষণ বিশেষজ্ঞ প্রফেসর ড. তাহমিনা বেগম। তিনি ভূতপূর্ব মহাপরিচালক প্রফেসর ড. শাহ মো. আমির আলীর স্থলাভিসিক্ত হলেন।

ড. তাহমিনা মোহাম্মদী গ্রুপের পরিচালক, সীতাকুণ্ডের গোলাবাড়িয়ানিবাসী, সাবেক ছাত্রনেতা জসিম উদ্দিনের সহধর্মিনী। তাঁর বাড়ি সীতাকুণ্ড পৌরসভার মহাদেবপুরে। তাঁর বাবা জালাল আহমেদ; বড়ভাই অবসরপ্রাপ্ত সেনা-কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহাজাহান কোরিয়ান ইপিজেড কর্পোরেশন (বিডি) লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক।

ড. তাহমিনার শিক্ষাজীবন শুরু চট্টগ্রামের শিল্পাঞ্চল সীতাকুণ্ডে। তিনি সীতাকুণ্ড গার্লস হাইস্কুল থেকে এসএসসি এবং সীতাকুণ্ড ডিগ্রি কলেজ থেকে এইচএসসিতে কৃতিত্বের সাথে উত্তীর্ণ হন। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে সমাজতত্ত্ব বিভাগ থেকে তিনি অনার্স ও মাস্টার্স সম্পন্ন করেন। পরবর্তীতে ১৪তম বিসিএস পাস করে তিনি কর্মজীবনে প্রবেশ করেন। লক্ষীপুর সরকারি কলেজে তাঁর প্রথম শিক্ষকতাজীবন শুরু। তারপর তিনি ভাওয়াল বদরে আলম সরকারি কলেজ, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজে অধ্যাপনা করেন। সর্বশেষ তিনি যোগ দেন নায়েমে। দীর্ঘদিন এখানে প্রশিক্ষণ বিশেষজ্ঞ হিসেবে অত্যন্ত সুনাম ও দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালনশেষে মহাপরিচালক হিসেবে পদোন্নতি লাভ করেন। চাকরিরত অবস্থায় তিনি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করেন।

ব্যক্তিগতজীবনে ড. তাহমিনা দুই কন্যাসন্তানের জননী। বড়মেয়ে আনিকা তাবাসসুম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিবিএ ডিগ্রি নিয়ে বর্তমানে ঢাকায় এইচএসবিসি ব্যাংকে ক্লায়েন্ট সার্ভিসেস ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত। ছোটমেয়ে রওনক তারান্নাম মালয়েশিয়ার মোনাস ইউনিভার্সিটিতে বিবিএতে পড়াশোনা করছেন।

সীতাকুণ্ডের কৃতীসন্তান ড. তাহমিনা বেগম নায়েম এর শীর্ষ পদে (মহাপরিচালক) নিযুক্ত হওয়ায় সীতাকুণ্ড জনকল্যাণ ফোরামের সভাপতি আজিজ আহমেদ চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক রোটারিয়ান সাংবাদিক মোহাম্মদ ইউসুফ তাঁকে আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।