২৬শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ || ৯ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

প্রথমবারের মতো চট্টগ্রাম-৯ (কোতোয়ালী) আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল

সংসদ নির্বাচনে নিজের জয় নিয়ে শতভাগ আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন

তিনি বলেছেন, বৃহত্তর চট্টগ্রামের প্রতিটি এলাকা জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নযজ্ঞের অংশীদার হয়েছে। মানুষ এর সুফল ভোগ করছে। আমার বিশ্বাস, এসব উন্নয়নের মূল্যায়ন তারা ভোটের মাধ্যমে দেবেন। ব্যালটের মাধ্যমে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে পুনরায় ম্যান্ডেট দিয়ে হ্যাট্রিক জয় উপহার দেবেন।

রোববার (৩০ ডিসেম্বর) সকাল ৯টায় নগরের পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে নিজের ভোট দেয়া শেষে নওফেল এসব কখা বলেন।

নওফেল বলেন, গতকাল রাত থেকে সারাদেশে কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটেছে। এ জন্য আমরা সবাইকে বলেছি সতর্ক থাকতে। যারা ইতোমধ্যে গোপন রাজনীতিতে প্রবেশ করেছে, তারা এ রকম আরও বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটাতে পারে।

নগরের পলিটেকনিক ভোটকেন্দ্রে ভোট দিচ্ছেন ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের প্রতি বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছেন, কোনো ষড়যন্ত্রে পা না দিয়ে আমরা যেন শেষ পর্যন্ত মাঠে থেকে ফল নিয়ে বাড়ি ফিরি। নেত্রীর নির্দেশে আমরা মাঠে আছি। ফল নিয়েই ঘরে যাবো।

নওফেল বলেন, এবারের নির্বাচনে জনগণ একটি বিষয়কে অত্যন্ত নিন্দনীয় হিসেবে দেখছে। যারা যুদ্ধাপরাধী এবং মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী তারা বিএনপির সঙ্গে একীভূত হয়ে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে। জামায়াত-শিবির গোষ্ঠী যারা নির্বাচন কমিশনের নিবন্ধন হারিয়েছে, তাদের দলে নেয়ার কারণে বিএনপিকে আজকের নির্বাচনে মানুষ বর্জন করবে।

এর আগে সকাল সাড়ে ৮টার দিকে নগরের চশমা হিলের বাসা থেকে ভোট দেয়ার জন্য বের হন নওফেল। এরপর বাবা নগর আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও মেয়র প্রয়াত এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর কবর জেয়ারত করেন তিনি। পরে ছোট ভাই বোরহানুল হাসান চৌধুরীকে সঙ্গে নিয়ে নগরের পলিটেকনিক ভোটকেন্দ্রে ভোট দিতে আসেন তিনি।