আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী তালিকার বিজ্ঞাপনে নাম না দেখে সংক্ষুব্ধ হয়েছেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) দুই সংরক্ষিত (নারী) কাউন্সিলর প্রার্থী।  আজ মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এ কথা জানান ২৮, ২৯ ও ৩৬ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী জিন্নাত আরা বেগম (লিপি) এবং ৭ ও ৮ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী জহুরা বেগম।

লিখিত বক্তব্যে তারা বলেন, ইতোপূর্বে চূড়ান্তভাবে আমাদের নাম ঘোষিত হলেও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচন কমিটি-২০২১ প্রদত্ত বিজ্ঞাপনে এ দুইটি সংরক্ষিত আসনে বিদ্রোহী দুজনকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে নাম প্রকাশ করা হয়। এতে আমরা সংক্ষুব্ধ এবং মর্মাহত।

চসিকের ১৪টি সংরক্ষিত আসনে ঘোষিত নামের তালিকা থেকে একটি আসনে একজন প্রার্থীর বয়স কম হওয়ায় প্রার্থী বদল এবং আরেকটি আসনে প্রয়াত জননেতা মরহুম ইছহাক মিয়ার কন্যাকে প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করাটা যৌক্তিক ছিল। কিন্তু নির্বাচনের মাত্র ৭ দিন আগে দুইটি সংরক্ষিত আসনে বিদ্রোহী প্রার্থীকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে নাম ঘোষণা আত্মঘাতী ও ষড়যন্ত্রমূলক।

তারা বলেন, আমরা দলের নিবেদিতপ্রাণ আদর্শিক কর্মী হিসেবে দীর্ঘদিন নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি হতে আপ্রাণ প্রয়াস চালিয়ে আসছি এবং ভোটারদের মনজয় করতে সমর্থ হয়েছি।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মুক্তা আরজু।

আওয়ামী লীগের চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রচারিত প্রার্থী তালিকায় ২৮, ২৯ ও ৩৬ নম্বর ওয়ার্ডে সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ফেরদৌসি আকবর এবং ৭ ও ৮ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী হিসেবে জেসমিন পারভীন জেসির নাম রয়েছে।