চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজনের নির্দেশে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ নয়টি স্পটে খানাখন্দ ভরাট করে যানচলাচল নির্বিগ্ন করতে পেচওয়াকের মাধ্যমে সড়ক মেরামত কাজ শুরু করা হয়েছে। আজ সোমবার সকালে সিটি কর্পোরেশনের প্রকৌশল বিভাগ এই কাজ শুরু করে। যে সকল সড়ক ও স্পটে পেচওয়াক করা হচ্ছে সেগুলো হলো এনায়েত বাজার মোড়, ফকিরহাট, চট্টেশ্বরী রোড, মেরিনার্স রোড, মুরাদপুর জানে আলম রোড, চান্দগাঁও ফরিদের পাড়া, হালিশহর লোহারপুল, পাহাড়তলী বাঁচা মিয়া রোড ও উত্তর কাট্টলী নাজির বাড়ি সড়ক। এসব সড়ক চট্টগ্রাম ওয়াসাসহ বিভিন্ন সেবা সংস্থার ক্রমাগত উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের কারণে খানাখন্দ সৃষ্টি হয়ে যান চলাচলে দুর্ভোগের পাশাপাশি ধুলোবালির কারণে শীতজনিত বিভিন্ন রোগবালায় দেখা দিচ্ছে। তাই নাগরিক জীবনের দুর্ভোগ কমাতে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন নগরীর সবগুলো সড়ক মেরামতের উদ্যোগ নিয়েছেন। তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়েও কোয়ারেন্টাইনে থাকা অবস্থায় কর্পোরেশনের সার্বিক কার্যক্রম ফোনে ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তদারক করছেন। চসিক প্রশাসকের নির্দেশনার আলোকে নিয়মিত নগরীর বিভিন্ন খাল পরিস্কারের পাশাপাশি সংযোগ লাইন প্রতিস্থাপনে ওয়াসাসহ বিভিন্ন সেবা সংস্থার কাটা সড়ক পেচওয়াক ও মেরামত করা হচ্ছে। সিটি কর্পোরেশনের প্রকৌশল বিভাগ সূত্রে জানা গেছে প্রশাসকের নির্দেশে নগরীর ক্ষতিগ্রস্ত সড়কগুলোর পেচওয়াকের কাজ ধারাবাহিক তালিকা অনুযায়ী চলমান থাকবে। প্রশাসক মেরামত করা সড়ক যাতে আবারো কাটতে না হয়, সে ব্যাপারে সকল সেবা সংস্থার সহযোগিতা চেয়েছেন বলে চসিকের প্রকৌশল বিভাগ জানান। পেচওয়াকের কাজ তদারককালে চসিকের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু সাদাত মোহাম্মদ তৈয়ব উপস্থিত ছিলেন।

সাবেক কাউন্সিলর তারেক সোলেমান সেলিমের মৃত্যুতে প্রশাসকের শোক

স্বৈরাচার বিরোধীসহ গণতান্ত্রিক আন্দোলন সংগ্রামে লড়াকু সাবেক ছাত্রনেতা ও ৩১নম্বর আলকরণ ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর তারেক সোলেমান সেলিমের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন। এক শোক বার্তায় তিনি বলেন ৯০ এর স্বৈরাচার বিরোধী গণআন্দোলনে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা তারেক সোলেমান যে ভূমিকা রেখেছেন, তা দেশের গণতান্ত্রিক আন্দোলন সংগ্রামের ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লিখা থাকবে। তারেক সোলেমান শুধু রাজনৈতিক কর্মী ছিলেন না। ছিলেন দক্ষ সংগঠকও। তার হাতে গড়ে উঠে শিশু কিশোরদের সংগঠন খেলাঘর। এরকম একজন প্রগতিশীল রাজনৈতিক কর্মীর অকাল প্রয়াণ দেশের গণতান্ত্রিক রাজনীতির বিকাশে অপূরনীয় ক্ষতি- যা সহজে পূরণ হবার নয়। প্রশাসক মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন ও তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবার পরিজনের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।