ছোট পর্দার দর্শকপ্রিয় অভিনেত্রী শবনম ফারিয়ার সংসার ভেঙে গেলো । শবনম ফারিয়া নিজেই বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিশ্চিত করেছেন ।

আজ শনিবার (২৮ নভেম্বর) সন্ধ্যায় নিজের ফেসবুকে ফারিয়া লেখেন, ‘জীবনটা নদীর মতো। কখনও জোয়ার, কখনও ভাটা। কখনও বৃষ্টিতে পানি বেড়ে যায়, শীতকালে পানি শুকিয়ে যায়। আমাদের জীবনেও এমনটা হয়! আমাদের জীবনে কিছু মানুষ আসে; কেউ কেউ স্থায়ী হয়, কেউ কেউ কিছু কারণে স্থায়িত্ব ধরে রাখতে পারে না। ’

ফারিয়া আরও বলেন, ‘আমার মা সবসময় একটা কথা বলেন, আল্লাহর হুকুম ছাড়া একটা গাছের পাতাও নড়ে না। আমরা শুধু চেষ্টা করতে পারি! ঠিক সেভাবেই আমি আর অপু অনেকদিন ধরেই চেষ্টা করেছি একঙ্গে থাকতে! কিন্তু বিষয়টা একটা পর্যায়ে খুব কঠিন হয়ে যায়! ‘মানুষ কি বলবে’ ভেবে নিজেদের উপর একটু বেশিই টর্চার করে ফেলছিলাম আমরা! জীবনটা অনেক ছোট, এতো কষ্ট নিয়ে বেঁচে থাকার কি দরকার? এটা ভেবে আমরা এ বছরের শুরু থেকেই সিদ্ধান্তে আসি আর একসাথে থেকে কষ্টে থাকতে চাই না!’

দুই বছরের বৈবাহিক সম্পর্কের ভাঙন প্রসঙ্গে ফারিয়া ফেসবুকে লেখেন, ‘তাও বছর খানেক সময় নিয়েছি পরষ্পরকে বুঝতে! ফাইনালি ‘আল্লাহ্ যা করেন ভালোর জন্যেই করেন’ ভেবে আমরা আমাদের প্রায় দুই বছরের বৈবাহিক জীবনের অবসান ঘটিয়ে আবারও ৫ বছরের পুরানো বন্ধুত্বে ফিরে এসেছি। বিবাহে বিচ্ছেদ হয়, কিন্তু ভালবাসার বিচ্ছেদ নেই! বন্ধুত্বের বিচ্ছেদ নেই! যতদিন বেঁচে আছি আমাদের ভালবাসা ও বন্ধুত্ব থাকবে। ’

দেবী’খ্যাত অভিনেত্রীর কথায়, ‘শুধুমাত্র বৈবাহিক বন্ধন থেকে আমাদের সম্পর্কের ইতি টেনে নিলাম! এ ঘটনা আমাদের জীবনের গতি হয়তো রোধ করবে, ছন্দপতন করবে কিন্তু জীবন তো থেমে থাকবে না! অপুর জন্যে আমার অনেক অনেক দোয়া, ভালোবাসা আর শুভকামনা। আমরা যে সুখের জন্যে আলাদা হলাম, আমরা যেন সে সুখ খুঁজে পাই। সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন। ’

আর পড়ুন:   নতুন করে ‘নোঙ্গর তোল তোল’ গাইবে চিরকুট

২০১৫ সালে ফেসবুকের মাধ্যমে হারুন অর রশিদ অপুর সঙ্গে শবনম ফারিয়ার বন্ধুত্ব হয়। এরপর প্রণয় ও পরিণয়। হ্যাঁ, ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারির ১ তারিখে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় তাদের।

২০১৩ সালে আদনান আল রাজীব পরিচালিত ‘অল টাইম দৌড়ের উপর’ নাটকে অভিনয়ের মাধ্যমে অভিনেত্রী হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন শবনম ফারিয়া।

এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। উপহার দিয়েছেন বেশ কিছু দর্শকপ্রিয় নাটক। কাজ করেছেন একাধিক বিজ্ঞাপনেও। আর ‘দেবী’ সিনেমার মাধ্যমে বড় পর্দায় অভিষেক হয় তার। এ অভিনেত্রী নিলু চরিত্রে অভিনয় করে আলাদা দর্শকপ্রিয় পরিচিতি পান  ।