১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ || ১লা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

শিক্ষার্থীদের দিনের যেই সময়টায়  শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে থাকার কথা ছিল কিন্তু তারা স্কুল/কলেজ ফাঁকি দিয়ে কয়েক গ্রুপে বিভক্ত হয়ে বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দিচ্ছিল নগরের সিআরবি এলাকায়।

আজ রবিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে এমন ২৬ শিক্ষার্থীর অভিভাবকদের ডেকে এনে এ বিষয়ে অবহিত করেছে কোতোয়ালি থানা পুলিশ।

কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসিন জানান, প্রায়শই দেখা যায় স্কুল চলাকালীন শিক্ষার্থীদের একটি অংশ নগরের বিভিন্ন বিনোদন কেন্দ্রে আড্ডা দেয়, ঘোরাফেরা করে। অথচ তাদের অভিভাবকরা মনে করছেন তাদের সন্তান বিদ্যালয়ে বা কলেজে গেছে। এভাবে স্কুল/কলেজ ফাঁকি দেয়া শিক্ষার্থীরাই পরে বিভিন্ন কিশোর গ্যাংয়ের সদস্য হয়ে ওঠছে। এভাবেই বিপদগামী হচ্ছে তারা।

তিনি বলেন, এসব শিক্ষার্থী আমাদেরই ভাই-বোন ও সন্তান। তাদের ভুল থেকে ফেরাতে উদ্যোগ নিয়েছে পুলিশ। ব্যস্ত নাগরিক জীবনে সন্তানদের খোঁজ রাখার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে অভিভাবকদেরও।

সন্তানদের পড়ালেখায় মনোযোগী হওয়ার উপদেশমূলক বক্তব্য দিচ্ছেন অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসিন

ওসি মোহাম্মদ মহসিন বলেন, আজ স্কুল ফাঁকি দিয়ে সিআরবি এলাকায় আড্ডা দেওয়া ২৬ শিক্ষার্থীকে ডেকে নিয়ে তাদের অবস্থান সম্পর্কে নিজ নিজ পরিবারকে জানানো হয়েছে। এসময় তাদের স্কুল-কলেজ ফাঁকি না দিয়ে পড়ালেখায় মনোযোগী হওয়ার উপদেশ দেয়া হয়েছে। শিক্ষার্থীরা তাদের ভুল বুঝতে পেরেছে। বিষয়টিকে অভিভাবকরাও ইতিবাচকভাবে নিয়েছেন। তারা জানিয়েছেন, বিষয়টি তাদের কল্পনারও বাইরে। পুলিশ না জানালে তাদের সন্তানদের এ অবস্থা সম্পর্কে  জানতেই পারতেন না তারা।