৬ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ || ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে খুব শিগগির কাঁটা তারের বেড়া দিয়ে প্রাচীর নির্মাণ করা হবে। ক্যাম্পে আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখা ও নিরাপত্তার জন্য কাঁটা তারের বেড়া দেয়া হবে। জেলখানার মতো হবে তা ভাবার কোনো কারণ নেই। বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

আজ বৃহস্পতিবার (২৬ সেপ্টেম্বর)  সচিবালয়ে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্থার আর্ল মিলার ও কানাডার হাইকমিশনার বেনোইট প্রভোটেইনের সঙ্গে বৈঠকের পর তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বাংলাদেশ সরকার কেন কাঁটা তারের বেড়া দিতে চায় তা জানতে চেয়েছেন  যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার রাষ্ট্রদূত। আমরা বলেছি তুরস্কসহ পৃথিবীর অনেক দেশ শরণার্থীদের নির্দিষ্ট প্রাচীরেই রাখে। তেমনি আমরা কাঁটা তার দিয়ে প্রাচীর করে দেব। যাতে রোহিঙ্গারা ছড়িয়ে না যায়। এতে তারা (যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা) আশ্বস্থ হয়েছেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কাঁটা তার দিলে রোহিঙ্গারা একটি জায়গায় থাকবে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি বজায় থাকবে। রোহিঙ্গারা নিজেরা মারামারি করে। সম্প্রতি তারা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করছে। অনেকে ইয়াবাসহ মাদকের বাহক হিসেবে কাজ করছে। এসব বন্ধে তার দিয়ে প্রাচীর করা হবে।

কবে নাগাদ বেড়া হতে পারে জানতে চাইলে আসাদুজ্জামান খান বলেন, খুব শিগগিরই হবে। তবে প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরলে জানা যাবে। প্রথমে বড় ৩/৪ টি ক্যাম্পে তার দিয়ে বেড়া দেয়া হবে। পর্যায়ক্রমে পুরো ক্যাম্পে বেড়া দেয়া হবে।

মন্ত্রী আরও বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার দূতরা ক্যাম্পে জন্ম নেয়া রোহিঙ্গা শিশুদের নিজ দেশের ভাষা শিক্ষা দেয়ার কথা বলেছেন। আমরাও বলেছি তাদের বাচ্চাদের যাতে তাদের দেশের ভাষা ও কারিকুলাম অনুযায়ী শিক্ষা দেয়া হয়। সেটি এনজিওদেরও বলেছি।