৬ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ || ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সাবেক সিনিয়র সচিব নাছিমা বেগমকে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে । এর আগে তিনি সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় এবং মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব থাকাকালীন গত ৯ জানুয়ারি অবসরোত্তর ছুটিতে যান নাছিমা বেগম।

আজ রবিবার (২২সেপ্টেম্বর) তাকে নিয়োগ দিয়ে আইন মন্ত্রণালয়ের লেজিসলেটিভ ও সংসদবিষয়ক বিভাগ থেকে এক আদেশ জারি করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, জাতীয় মানবাধিকার কমিশন আইন, ২০০৯’ এর বিধান অনুযায়ী রাষ্ট্রপতি এ নিয়োগ দিয়েছেন। নাছিমা বেগম জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান পদে থাকাকালীন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের একজন বিচারকের বেতন, ভাতা ও অন্য সুবিধাদি পাবেন।

জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের দায়িত্ব চালিয়ে আসা কাজী রিয়াজুল হকের মেয়াদ গত ১ জুলাই শেষ হয়। এরপর থেকে গত ৬ আগস্ট পর্যন্ত ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন সার্বক্ষণিক সদস্য মো. নজরুল ইসলাম।

অপর এক প্রজ্ঞাপনে সাবেক সচিব কামাল উদ্দিন আহমেদকে সার্বক্ষণিক সদস্য হিসেবে এবং আরও ছয়জনকে কমিশনের অবৈতনিক সদস্য হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

অবৈতনিক সদস্যারা হচ্ছেন- বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র অ্যাডভোকেট তৌফিকা আফতাব, রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান চিংকিউ রোয়াজা, সাবেক সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ বেগম জেসমিন আরা বেগম, মিজানুর রহমান খান এবং সাবেক সচিব ড. নমিতা হালদার।

নাছিমা বেগম বলেন, ‘শুধু প্রশাসনেই নয়, এমন কোনো সেক্টর নেই, যেখানে নারীরা দায়িত্ব পালন করছে না। এখন দেশের সবখানেই পুরুষের পাশাপাশি নারীরা যোগ্যতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করছেন।’ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকারের আমলে ব্যাপকভাবে নারীর ক্ষমতায়ন করা হয়েছে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।