৬ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ || ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

গোলাম সারোয়ার *

সর্বশেষ যে খবর পেলাম তাতে জানলাম, কাশ্মীরের ৩৭০ ধারা বিলোপের জেরে কাশ্মীরে এ পর্যন্ত অন্তত ৪ হাজার ১০০ জনকে গ্রেফতার বা আটক করেছে কাশ্মীরের নিরাপত্তা বাহিনী। আটককৃতদের রাখার জন্যে উপত্যকায় আর কোনো জেল খালি নেই।  তাদের এখন রাখা হচ্ছে বিভিন্ন হোটেলে আর রেস্টরুমে। তারপর কি হবে, যদি সত্যি সত্যি উপত্যকায় গণআন্দোলন দানা বাঁধে ? এটা ভারতের খবর।

আসেন এবার বাংলাদেশে। বাংলাদেশের বিরোধীদল বিএনপি দাবি করে দেশের নব্বইভাগ লোক তাদের সমর্থন করে। আমাদের দেশে ৮৫,৬৫০টি গ্রাম আছে কিতাব মতে। এখন অবশ্য আরো বেশি হবে। প্রতিটি গ্রাম থেকে বিএনপির এবং তাদের অঙ্গসংগঠনের শুধু সভাপতি সেক্রেটারি যদি স্বেচ্ছায় কারাবরণ করে তবে বাংলাদেশের জেলগুলোতে আর জায়গা হওয়ার কথা নয়। এটি হলো সরল হিসাব। কিন্তু বাস্তবে তা নেই। তারমানে বিএনপি নিজেই রাজনীতিতে নেই। তারা শুধু বলেন, সরকার এটা করতে দিচ্ছেনা, ওটা করতে দিচ্ছেনা। কোনো সরকার কি কোনো বিরোধীদলকে পোলাও-কোরমা খাইয়ে রাজনীতি করায় ? কেউ কি কোনো যুগেই কাউকে ক্ষমতায় এনে বসিয়ে দেয় ?

দেশে বন্যা গেলো, গুজব গেলো, ডেঙ্গু মহামারী গেলো,– বিএনপি শুধু সমালোচনাই করলো সরকারের। তাদের কোনো কর্মশালা নেই। বন্যার্তদের ত্রাণ দিলেও কি আওয়ামী লীগ তাঁদের গ্রেফতার করতো ? করলে মানুষ দেখতো। আপনি রাস্তায় থাকলে, নির্যাতিত হলে, মানুষ ঘনীভূত হবেই।

আমাদের বর্তমান সরকার কি লিবিয়ার সাবেক স্বৈরশাসক গাদ্দাফির থেকে নৃঃশংস ? গণজোয়ারে গাদ্দাফিকেও করুণভাবে যেতে হয়েছে। মানে জনগণ আপনার সাথে থাকতে হবে। বাংলাদেশের জনগণ আসলেই কি বিএনপিকে বিশ্বাস করে ? সাধারণ মানুষ কি এখনো বিশ্বাস করে, তারা ক্ষমতায় আসলে এখন যেভাবে চলছে তারচেয়ে ভালো চলবে? সে নজির কি মানুষের কাছে আছে ? যদি তাই হতো তবে যে নির্বাচনের এত সমালোচনা সে নির্বাচনের পর কোনো গণপ্রতিবাদ হয়নি কেন ? কারণ মানুষ জানে কোনটি জ্বলন্ত উনুন আর কোনটি ফুটন্ত কড়াই।

আর পড়ুন:   ভয়ঙ্কর গ্যাং কালচার কিশোরেরা অপরাধের শিকার

তবুও বলবো দেশে রাজনীতি লাগবে। রাজনীতি ছাড়া চলবেনা। দেশে কেউ রাজনীতি না করলে সরকারের আশ্রয়ে আজ যারা ভুলের ওপর আছে তাদের ভুল কখনো শোধরাবে না। ক্ষমতাকে চেক এন্ড ব্যালেন্সে রাখতে হবে। তাহলে ভারসাম্য রক্ষা হবে। রাজনীতি করতে হয়। রাজনীতি না করে রাজনৈতিক সুবিধা নিলে অন্তিমে অন্তরীণে পঁচতে হয়। এটি আজকের জন্যে যেমন সত্যি, আগামির জন্যেও তেমনি সত্যি।

লেখক-গোলাম সারোয়ার, কলামিস্ট ও গবেষক।