৬ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ || ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ভারতের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে কাঁদলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

সুষমা স্বরাজের এমন অসময়ে চলে যাওয়া মেনে নিতে পারছেন না কেউ। তাই এ ক্ষেত্রে ব্যতিক্রম ছিলেন না মোদি। প্রিয় সাথীকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে এসে তাই আবেগ সামলাতে পারলেন না প্রধানমন্ত্রী। ক্যামেরায় ধরা পড়ল মোদী কান্নার দৃশ্য।

এ নিয়ে বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশ করে আনন্দবাজার পত্রিকা। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, সুষমা স্বরাজের প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক পথচলা দীর্ঘদিনের। মোদী জমানার প্রথম দফায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী কর্মদক্ষতা প্রশংসায় মুখর হয়েছেন সকলে। অতীতে বাজপেয়ী সরকারের তথ্য সম্প্রচার মন্ত্রী সুষমা মোদী সরকারের প্রথম দফায় পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব নিয়েই ঢেলে সাজান তার দফতরকে।

সরকারের প্রতিটি পদক্ষেপকে সার্বিক সমর্থন জানাতে ভোলেননি সুষমা। এমনকী মৃত্যুর কয়েক ঘণ্টা আগেও কাশ্মীর পুনর্গঠন বিলকে সমর্থন জানিয়ে টুইট করেন সুষমা।

জম্মু-কাশ্মীরের সাংবিধানিক মর্যাদা বাতিল এবং রাজ্য দুটিকে কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলে ভাগ করার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে অভিনন্দন জানান সুষমা স্বরাজ।

টুইট বার্তায় সুষমা লেখেছিলেন, আপনাকে অনেক ধন্যবাদ প্রধানমন্ত্রী। হয়তো এটা দেখার জন্যই আমি বেঁচেছিলাম। এটা দেখার অপেক্ষায় ছিলাম সারাজীবন।

তার আলোচিত আবেগঘন টুইটের প্রায় ৩ ঘণ্টা পরই হার্ট অ্যাটাকে মৃত্যু হয় ভারতের সাবেক এ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর।

সুষমাকে অন্তিম শ্রদ্ধা জানাতে তার বাসভবনে হাজির হন বিশিষ্টজনরা। রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নায়ডু, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, লালকৃষ্ণ আডবাণী, মনমোহন সিংহ, সোনিয়া এবং রাহুল গান্ধীসহ বহু রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব পুষ্পস্তবক দিয়ে তাকে শেষ শ্রদ্ধা জানান।

এখানেই প্রাক্তন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মরদেহে পুষ্পস্তবক দিয়ে শ্রদ্ধা জানান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

বুধবার(৭আগস্ট) সকালে বিজেপির অন্যান্য নেতাকর্মীদের সঙ্গে সুষমার বাসভবনে যান মোদী। দেখা করেন সুষমা স্বরাজের স্বামী স্বরাজ কুশলের সঙ্গে।এই সময়ে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন দু’জনেই।