৭ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ || ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ময়নাতদন্তে শিশু সামিয়া আফরিন সায়মার (৭) শরীরে ধর্ষণের আলামত মিলেছে। ধর্ষণের পর তাকে গলায় রশি পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে।

শনিবার (৬ জুলাই) দুপুরে ময়নাতদন্ত শেষ করে এসব তথ্য গণমাধ্যমকর্মীদের জানান ঢাকা মেডিকেল কলেজের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ডা. সোহেল মাহমুদ।

সোহেল মাহমুদ আরও বলেন, ময়নাতদন্তে তার যৌনাঙ্গে ক্ষত চিহ্ন, মুখে রক্ত ও আঘাতের চিহ্ন, ঠোঁটে কামড়ের দাগ দেখা গেছে।

উল্লেখ্য, ঢাকার ওয়ারী বনগ্রামে শুক্রবার (৫ জুলাই) সন্ধ্যার পর থেকে শিশু সায়মার খোঁজ পাচ্ছিল না পরিবার। পরে স্থানীয় একটি নবনির্মিত ভবনের ফাঁকা ফ্ল্যাটের ভেতরে সায়মার মরদেহ খুঁজে পায় পরিবার।

ওয়ারী সিলভারডেল স্কুলের নার্সারিতে পড়ত সায়মা।

সায়মার বাবা আব্দুস সালাম বাদী হয়ে ওয়ারী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন। ওই মামলায় ভবন মালিকসহ পাঁচজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ।

ডিএমপির ওয়ারী বিভাগের সহকারী কমিশনার মোহাম্মদ সামসুজ্জামান বলেন, ‘ময়নাতদন্ত শেষে ঢামেক ফরেনসিক বিভাগ ওই শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে। মামলা হয়েছে। আমরা এ ঘটনায় কার্যকরী পদক্ষেপ নিচ্ছি। সন্দেহভাজন কয়েকজনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।