৮ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ || ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

উপ-উপাচার্যের দায়িত্বে থাকা অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতার চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) ১৮তম উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন।  চবির ইতিহাসে তিনিই প্রথম কোনো নারী উপাচার্য আর দেশের ইতিহাসে তৃতীয় নারী উপাচার্য। তবে পরবর্তী উপাচার্য নিয়োগ না দেয়া পর্যন্ত তিনি উপাচার্যের রুটিন দায়িত্ব পালন করবেন বলে আদেশে বলা আছে।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) বিকেল ৪টার দিকে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের উপ-সচিব হাবিবুর রহমান স্বাক্ষরিত এক ফ্যাক্স বার্তায় এই আদেশ দেয়া হয়।

বিষয়টি  নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) কে এম নূর আহমদ। তিনি বলেন, চবির একাডেমিক ও প্রশাসনিক কাজের ধারাবাহিকতার স্বার্থে উপাচার্য পদে নিয়োগ না হওয়া পর্যন্ত উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতার উপাচার্যের রুটিন দায়িত্ব পালন করবেন। এ সংক্রান্ত মন্ত্রণালয়ের একটি আদেশ পেয়েছি।

এদিকে তাৎক্ষণিক এক প্রতিক্রিয়া উপাচার্যের দায়িত্ব পাওয়া অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতার  বলেন, আমি ভারপ্রাপ্ত হিসেবে দায়িত্ব পেলাম। তবে রেগুলার দায়িত্ব পেলে আরও খুশি হতাম। যাই হোক যেটুকু পেয়েছি আল্লাহর কাছে অশেষ শুকরিয়া। সবাইকে নিয়েই আমার এই যাত্রা শুরু করতে চাই। এ সময় তিনি রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, শিক্ষামন্ত্রী, উপমন্ত্রী ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সকলের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

এদিকে রুটিন দায়িত্ব পালনকালে সব সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন কি-না – এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, যেকোনো সিদ্ধান্ত আমি গ্রহণ করতে পারবো না। তবে উপাচার্য যে কাজগুলো করেন, সেগুলো আমি করতে পারবো। আরও অধিকতর দায়িত্বের জন্য মাস দুয়েক পর আমাকে মন্ত্রণালয় থেকে আরেকটি চিঠি নিয়ে আসতে হবে।

অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতার

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন সার্চ কমিটির একমাত্র মহিলা সদস্য ছিলেন ড. শিরীণ আখতার। তিনি ১৯৯৬ সাল থেকে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় বাঙালি জাতীয়তাবাদ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের (হলুদ দল) সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তার বাবা মৃত আফসার কামাল চৌধুরী ছিলেন কক্সবাজার আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি।

আর পড়ুন:   উন্নয়ন ও নগরায়নের অর্থ হলো  প্রকৃতির সাথে সমন্বয় সাধন

তিনি কক্সবাজার সরকারি গার্লস স্কুল থেকে ১৯৭৩ সালে এসএসসি, ১৯৭৫ সালে চট্টগ্রাম সরকারি গার্লস কলেজ থেকে এইচএসসি, ১৯৭৮ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা ভাষা ও সাহিত্য বিভাগ থেকে বিএ (অনার্স), ১৯৮১ সালে একই বিভাগ থেকে এমএ এবং ১৯৯১ সালে ‘বাংলাদেশের তিনজন ঔপন্যাসিক শওকত ওসমান, ওয়ালিউল্লাহ, আবু ইসহাক’ অভিসন্দর্ভের ওপর ভারতের যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন।

তিনি চট্টগ্রাম এনায়েত বাজার মহিলা কলেজে ১৯৮৪ থেকে ১৯৯৫ সাল পর্যন্ত প্রভাষক পদে কর্মরত ছিলেন। তিনি ১ জানুয়ারি ১৯৯৬ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে প্রভাষক পদে যোগদান করেন। শিরীণ আখতার ১৯ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৭ সালে সহকারী অধ্যাপক, ২০০২ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর সহযোগী অধ্যাপক এবং ২০০৬ সালের ২৫ জানুয়ারি অধ্যাপক পদে পদোন্নতি লাভ করেন। ২০১৬ সালের ২৮ মার্চ তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পান।