১লা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ || ১৭ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

পাকিস্তানের ১৫ তম জাতীয় পরিষদের (এনএ) প্রথম অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়েছে গতকাল সোমবার (১৩ আগস্ট)  । ইমরান খানসহ ৩২৯ জন জাতীয় পরিষদ সদস্য শপথ গ্রহণ করার পর অধিবেশন সমাপ্ত হয়।
বিদায়ী স্পিকার আয়াজ সাদিক নির্বাচিত সদস্যদের শপথ গ্রহণ করান। জাতীয় পরিষদের সদস্য সংখ্যা ৩৪২।
পাকিস্তানের আগামী প্রধানমন্ত্রী তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) পার্টির চেয়ারম্যান ইমরান খান এবং পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন) সভাপতি শাহবাজ শরীফ, পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) চেয়ারম্যান বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি ও সাবেক প্রেসিডেন্ট আসিফ আলি জারদারি সহ অন্যান্য বিশিষ্ট রাজনৈতিক নেতারা শপথ গ্রহণ করেন। আরো ছিলেন রাজা রব্বানি খার ও তার বোন হিনা রব্বানি খার, সাবেক প্রধানমন্ত্রী রাজা পারভেজ আশরাফ ও মিয়া মোহাম্মদ সমরো প্রমুখ নির্বাচিত জাতীয় পরিষদ সদস্য।

উল্লেখ্য, বিলাওয়াল এই প্রথম জাতীয় পরিষদের সদস্য হয়েছেন। শপথ গ্রহণ শেষে স্পিকার ১৫ আগস্ট সকাল ১০টা পর্যন্ত অধিবেশন মুলতবি করেন। ঐদিন স্পিকার ও ডেপুটি স্পিকার নির্বাচন করা হবে। পিটিআই স্পিকার পদের জন্য খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রাদেশিক পরিষদের স্পিকার আসাদ কায়সারকে মনোনীত করেছে। তার প্রতিদ্বন্দ্বী হচ্ছেন ১১ দলয় বিরোধী জোট সমর্থিত পিপিপির সৈয়দ খুরশিদ শাহ।
এবার পাকিস্তান জাতীয় পরিষদে তিন জন পিতা ও তিন পুত্র নির্বাচিত হয়েছেন। তারা হলেন সাবেক প্রেসিডেন্ট আসিফ আলি জারদারি ও তার পুত্র বিলাওয়াল ভু্ট্টো জারদারি,পারভেইজ মালিক ও তা পুত্র আলি পারভেইজ মালিক এবং শাহ মেহমুদ কুরেশি ও তার পুত্র জাইন কুরেশি।
অন্যদিকে সিন্ধু, খাইবার পাথুনখাওয়া ও বালুচিস্তান প্রাদেশিক পরিষদের সদস্যরাও গতকাল শপথ গ্রহণ করেন।