১৬ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ || ৩০শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

জাতির পিতা যে সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন দেখেছিলেন, আমাদের দায়িত্ব হবে সেই লক্ষ্যে কাজ করে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করা। তাহলেই তার বিদেহী আত্মা শান্তি পাবে। বললেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন।  বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট ) সুপ্রিম কোর্ট আয়োজিত জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে কোরআন খতম, মোনাজাত এবং স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।

প্রধান বিচাপতি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস ইতিহাসের এক বেদনাবিধূর ও বিভীষিকাময় দিন। ১৯৭৫ সালের এ দিনে পরিবার-পরিজনসহ নির্মম হত্যাকাণ্ডের শিকার হন স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি।

প্রধান বিচারপতি বলেন, আজ শোকাবহ ১৫ অগাস্ট, জাতীয় শোক দিবস। ইতিহাসের বেদনাবিধুর ও বিভীষিকাময় এক দিন। ১৯৭৫ সালের এই দিনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করা হয়। তার পরিবারের ছয় বছরের শিশু থেকে শুরু করে অন্তঃসত্ত্বা নারীও সেদিন ঘাতকের গুলি থেকে রেহাই পায়নি।

তিনি বলেন, ওই হত্যাকাণ্ড স্বাধীন বাংলাদেশের ইতিহাসে ‘সবচেয়ে অশ্রুভেজা ও কলঙ্কময়’ অধ্যায়। বাঙালি জাতি আজ গভীর শোক ও শ্রদ্ধায় তার শ্রেষ্ঠ সন্তানকে স্মরণ করছে।

আপিল বিভাগের বিচারপতি ইমান আলী, বিচারপতি মো. নুরুজ্জামান, বিচারপতি আবু বকর সিদ্দিকী ও হাইকোর্টের বিচারপতিগণ এ কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন।