১৬ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ || ১লা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

বীর চট্টগ্রামের হাজার বছরের ইতিহাস-ঐতিহ্য তুলে ধরে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল করিম চৌধুরী ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলন থেকে শুরু করে বায়ান্নোর ভাষা আন্দোলন, ৬৬ এর ৬দফা আন্দোলন, ৬৯ এর গণঅভ্যুত্থান, একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধসহ বাঙালি জাতির প্রতিটি আন্দোলন-সংগ্রামে চট্টগ্রাম অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছে। জাতির যেকোনো দুর্যোগ-দুর্বিপাকে ও গৌরবজনক ঘটনায় চট্টগ্রাম আগেই পথ দেখিয়েছে। মঙ্গলবার(৩০ আগস্ট) সন্ধারাতে রেডিশন  ব্লু চট্টগ্রাম বে ভিউ হোটেলে রবি আজিয়াটা লিমিটেড আয়োজিত “আরার চাটগাঁ উৎসব” শীর্ষক একটি বিশেষ অনুষ্ঠানে  প্রধানঅতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধান অতিথির বক্তৃতা করছেন সিটি মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. রেজাউল করিম চৌধুরী

রবিকে বর্তমান পর্যায়ে নিয়ে আসার জন্যে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা- কর্মচারিদের পরিশ্রম, সাধনা ও ত্যাগের কথা উল্লেখ করে চসিক মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, রবি শব্দের মানে সূর্য। সূর্য যেভাবে আলো ছড়ায় ঠিক তেমনি দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম মোবাইল ফোন অপারেটর রবিও কোটি কোটি গ্রাহকের মধ্যে সেবার আলো ছড়িয়ে জাতিকে সমৃদ্ধ করছে।

চট্টগ্রামের স্থানীয় ও একদিনের ক্রিকেটে বাংলাদেশের জাতীয় দলের অধিনায়ক তামিম ইকবালকে আগামী দুইবছরের জন্যে রবির ব্যান্ড অ্যাম্বেসেডর হিসেবে পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়। এ ছাড়া রবির ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে পরিচয় করিয়ে দেয়া হয় তারকা জুটি সিয়াম আহমেদ ও সাফা কবিরকে।

রবির সাথে নতুর পথচলার বিষয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে তামিম বলেন,“হোক ব্যাটিং, ফিল্ডিং বা বোলিং অথবা গ্রাহকের জীবনকে সহজ করে তোলার মতো সল্যুশন মার্কেটে নিয়ে আসা;ডিজিটাল স্পেস ও ক্রিকেটকে একই সুতোই বেঁধে রেখেছে উদ্ভাবনী চিন্তাধারা। তাই দেশজুড়ে শীর্ষস্থানীয় উদ্ভাবনী ব্র্যান্ড রবি’র নেটওর্য়াকের ক্ষমতা এবং ডিজিটাল দক্ষতার প্রচারে কাজ করার সুযোগ পেয়ে আমি অত্যন্ত আনন্দিত।”

রবি’র চিফ কমার্শিয়াল অফিসার শিহাব আহমেদ বলেন, “টেলিকমসেবার প্রথমদিন থেকে শুরু করে ক্রমান্বয়ে ডিজিটাল লাইফস্টাইলের বিবর্তন পর্যন্ত আমাদের চট্টগ্রামের গ্রাহকেরা রবির প্রতি তাদের গভীর আস্থা ও অকুণ্ঠ সমর্থন দিয়ে আসছেন।এর কৃতজ্ঞতাস্বরূপ চট্টগ্রামে আমাদের গ্রাহকদের জন্যে সর্বোত্তম সেবা নিশ্চিত করতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।আমরা ফোরজি নেটওয়ার্ক সাইটে গ্রাহক প্রতি সর্বোচ্চ স্পেকট্রাম করেছি-যা ইতোমধ্যে জনসংখ্যার ৯৮দশমিক ২ শতাংশ গ্রাহকের কাছে পৌঁছেছে।”

রবি’র অ্যাক্টিং সিইও অ্যান্ড চিফ ফিন্যানসিয়াল অফিসার এম. রিয়াজ রশীদ বলেন, “ প্রথম থেকেই চট্টগ্রামবাসী রবিকে তাদের হৃদয়ে জায়গা দিয়েছে এবং রবির প্রতি তাদের অকৃত্রিম ভালোবাসা দেশজুড়ে নেটওয়ার্ক সম্প্রসারিত করার অগ্রযাত্রায় আমাদের আত্মবিশ্বাস যুগিয়েছে। তাই, চট্টগ্রামের গ্রাহকদের প্রতি আমরা চিরকৃতজ্ঞ । তামিম আমাদের ব্যাটিং পার্টনার হিসেবে যোগ দেয়ায় চট্টগ্রামে আমাদের গ্রাহকদের উদ্ভাবনী ডিজিটাল সেবা প্রদানের মাধ্যমে স্মার্ট বালাদেশ গড়ে তুলতে আমাদের পথ আরও সুগম হবে।

রবি’র এক্সিকিউটিভ ভাইসপ্রেসিডেন্ট আহমদ আরমান সিদ্দিকী চট্টগ্রামবাসীকে নিয়ে প্রচলিত প্রবাদবাক্য “চট্টগ্রামের পোয়া, মেটিত পরলে লোহা” উল্লেখ করে বলেন, চট্টগ্রামের প্রতি রবি’র নাড়ির সম্পর্ক রয়েছে। তাই, রবি’র প্রতি এ পরম ভালোবাসার জন্যে চট্টগ্রাম অঞ্চলের গ্রাহকদের জানাই আন্তরিক কৃতজ্ঞতা ও শুভেচ্ছা।

অনুষ্ঠানে রবির ব্র্যান্ড অ্যাম্বেসেডর সিয়াম আহমেদ, সাফা কবির ও তামিম ইকবালের অংশগ্রহণে একটি মজার টকশো আয়োজন করা হয়।ডিজিটাল টুল ব্যবহার করে অনুষ্ঠানে উপস্থিত অতিথিদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণের মাধ্যমে টক-শোতে তাদের জীবনের বিভিন্ন আকর্ষণীয় দিকগুলো তুলে ধরা হয়।

পরিচয়পর্বের পর চট্টগ্রামের জনপ্রিয় আঞ্চলিকগানের ওপর নৃত্য প্রদর্শন করেন সিয়াম ও সাফা। একইসাথে রবির জনপ্রিয় ওটিটি প্ল্যাটফর্ম বিঞ্জে শিগরির মুক্তি পেতে যাওয়া ‘মেড ইন চট্টগ্রাম’ কন্টেন্টের প্রিমিয়ার অনুষ্ঠিত হয়। এরপর জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী হাবিব ওয়াহিদ উপস্থিত অতিথিদের তার জনপ্রিয় গানগুলো দিয়ে মুগ্ধ করেন।

অনুষ্ঠানে চট্টগ্রামের রবি’র শীর্ষ এন্টারপ্রাইজ গ্রাহক, সবচে’ পুরোনো গ্রাহক, বিশেষ গ্রাহক, এলিট গ্রাহক, পরিবেশক, খুচরা বিক্রেতা ও বিক্রয় প্রতিনিধিদের বিশেষ পুরস্কার প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠান চলাকালীন আয়োজিত ফেসবুক কুইজ প্রতিযোগিতায় বিজয়ীকে পুরস্কার প্রদান করা হয়।

এর আগে একই হোটেলে রবি’র লয়্যালটি প্রোগ্রাম এলিট গ্রাহকের জন্যে বিশেষ মেলার আয়োজন করা হয়।রবি’র এলিট গ্রাহকদের জন্যে বিশেষ ছাড় প্রদানে কয়েকটি এলিট নিবন্ধিত আউট মেলায় অংশ  নেয়। তামিম ইকবাল, সিয়াম ও সাফা মেলাটি পরিদর্শন করেন। মেলার উদ্বোধন করেন রবি’র অ্যাক্টিং ক্লাস্টার মার্কেট ডিরেক্টর ইস্টার্ন ক্লাস্টার মো. আশরাফুল কবির।

উল্লেখ্য, রবি আজিয়াটা লিমিটেড (রবি) একটি পাবলিক লিমিটেড কোম্পানি, যেখানে এশিয়ার টেলিযোগাযোগ বাজারের অন্যতম কোম্পানি মালয়েশিয়াভিত্তিক আজিয়াটা গ্রুপ বারহাদের সিংহভাগ মালিকানা (৬১.৮২%) রয়েছে। এছাড়া রবিতে পাবলিক শেয়ারহোল্ডারদের (১০%) পাশাপাশি বিশ্ব টেলিযোগাযোগ বাজারের অন্যতম কোম্পানি ভারতী এয়ারটেলের (ভারত) শেয়ার রয়েছে ২৮.১৮%।

রবি বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম মোবাইল ফোন অপারেটর। দেশের মানুষের জন্য প্রতিনিয়ত নতুন নতুন ডিজিটাল সেবা আনছে কোম্পানিটি। দেশের প্রতিটি প্রান্তে উদ্ভাবনী সেবা পৌঁছে দেয়ার উদ্দেশে রবি অব্যাহত বিনিয়োগের মাধ্যমে শক্তিশালী টেলিযোগাযোগ অবকাঠামো গড়ে তুলেছে। দেশজুড়ে থাকা এ অবকাঠামো ডিজিটাল পণ্য ও সেবা সরবরাহের পাশাপাশি ক্রমবর্ধমান ডিজিটাল প্রতিবেশ গড়ে তুলতে মুখ্য ভূমিকা পালন করছে। শহর কিংবা গ্রাম যেখানেই হোক ডিজিটাল বাংলাদেশের পথে হাঁটছে দেশবাসী রবির হাত ধরেই।