১৭ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ || ১লা জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় সন্তানকে স্কুলে ভর্তি করাতে গিয়ে গণপিটুনিতে নিহত তাসলিমা বেগম রেনুর পরিবারকে কেন ১ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দেয়া হবে না জানতে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে সংশ্লিষ্টদের এই রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব, শিক্ষা সচিব, পুলিশের মহাপরিদর্শক, ডিএমপি কমিশনার, বাড্ডা থানার ওসি, সংশ্লিষ্ট স্কুলের প্রধান শিক্ষক ও পরিচালনা বোর্ডের সভাপতিসহ সংশ্লিষ্টদের এই রুলের জবাব দিতে হবে।

রেনুর পরিবারের করা রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে মঙ্গলবার (২৭আগস্ট)  হাইকোর্টের বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামালের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ রুল জারি করেন। আদালতে এদিন রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট ইশরাত হাসান।

এর আগে রাজধানীর বাড্ডায় গণপিটুনিতে তাসলিমা বেগম রেনু নিহত হওয়ার ঘটনায় তার পরিবারকে ১ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ কেন দেওয়া হবে না তা জানতে চাওয়ার নির্দেশনা চেয়ে নিহতের বোন নাজমুন নাহার নাজমা ও ভাতিজা সৈয়দ নাছির উদ্দিন এ রিট দায়ের করেন। ওই রিটের শুনানি নিয়ে আদালত রুল জারি করেন।

গতকাল (সোমবার) হাইকোর্টের একই বেঞ্চ তাসলিমা বেগম রেনুসহ সারাদেশে গণপিটুনিতে যারা নিহত হয়েছেন, তাদের রক্ষা করতে না পারাকে কেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের ব্যর্থতা বলে ঘোষণা করা হবে না জানতে চেয়ে রুল জারি করেন। সেইসঙ্গে এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিষ্ক্রিয়তাকে কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, রুলে তাও জানতে চাওয়া হয়।

উল্লেখ্য, গত ২০ জুলাই নিজের মেয়েকে ভর্তি করানোর তথ্য জানতে রাজধানীর উত্তর পূর্ব বাড্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যান তাসলিমা বেগম রেনু (৪০)। এসময় ছেলেধরা সন্দেহে তাকে প্রধান শিক্ষকের রুম থেকে টেনে বের করে গণপিটুনি দিয়ে হত্যা করে একদল উন্মত্ত জনতা।