১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ || ৩রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

চট্টগ্রামের  সিটিগেট এলাকায় বাস থেকে ফেলে রেজাউল করিম রনিকে হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেছে রনির পরিবার, স্বজন, বন্ধু ও স্থানীয়রা।

বুধবার (২৯ আগস্ট) সকালে সিটিগেট এলাকায় ও দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে এসব মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
সিটিগেট এলাকার মানববন্ধনে রেজাউল করিম রনির বাবা অলি উল্লাহ, দেড় বছর বয়সী শিশুকন্যা সাবা করিম, মামা মোতাহের হোসেন সিদ্দিকী, আবদুর রহমান, মামাতো ভাই শামসুল ইসলামসহ পরিবারের সদস্যরা অংশ নেন।

মানববন্ধন থেকে বক্তারা রেজাউল করিম রনিকে বাস থেকে ফেলে ও চাপা দিয়ে হত্যায় জড়িত বাস চালক দিদারুল আলম ও সহকারী মো. মানিককে দ্রুত গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

রেজাউল করিম রনির মামাতো ভাই শামসুল ইসলাম  বলেন, আমার ভাই কোনো দুর্ঘটনায় মারা যায়নি। এটা কোন দুর্ঘটনা নয়। আমার ভাই রনিকে বাস থেকে মারধর করে ফেলে চাপা দিয়ে হত্যা করা হয়েছে। রনি হত্যায় জড়িতদের ফাঁসি দাবি করছি।

এদিকে নিহত রেজাউল করিম রনির বন্ধুদের আয়োজনে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে অংশ নেওয়া রনির বন্ধু ও পুলিশের উপ-পরিদর্শক সজল দাশ  বলেন, আমার বন্ধু রনি হত্যার বিচার দাবি করছি। রনি হত্যায় জড়িত বাসচালক ও সহকারীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

মঙ্গলবার (২৮ আগস্ট) রাতে নগরের আকবর শাহ থানায় নিহত রনির মামা আব্দুর রহমান বাদি হয়ে বাস চালক দিদারুল আলম ও সহকারী মো. মানিককে আসামি করে একটি হত্যা মামলা করেন।

সোমবার (২৭ আগস্ট) দুপুরে নগরের সিটিগেট এলাকায় চলন্ত বাসে ভাড়া নিয়ে ঝগড়ার পর মারধর করে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে বাসচালক ও সহকারীর বিরুদ্ধে। পরে রনিকে বাস চাপা দেওয়া হয় বলে অভিযোগ পরিবারের।