৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ || ২৩শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

বঙ্গমাতা এস এ গ্রুপ আন্তর্জাতিক স্কোয়াশ টুর্নামেন্ট- ২০২২এ ছেলেদের বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে মিশরের ইয়াসিন ইলশাফি। তিনি ভারতের অবিশেক আগারওয়ালকে পরাজিত করেন। মেয়েদের বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে মালয়েশিয়ার ভিনিকাশেনি। তিনি শ্রীলংকার ফাথমকে পরাজিত করেন।

ফাইনাল খেলা শেষে বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার বিতরণ করা হয়। পুরষ্কার হিসেবে প্রাইজমানি প্রদান করা হয়।

এই উপলক্ষে টুর্নামেন্ট ভেনু চিটাগাং ক্লাবে আয়োজিত সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিতি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন একুশে পদকপ্রাপ্ত বরেণ্য গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব, দৈনিক আজাদী পত্রিকার সম্পাদক এম এ মালেক, এস এ গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান শাহাবুদ্দিন আলম, ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ব্রীগেডিয়ার জেনারেল জি এম কামরুল ইসলাম, এসপিপি (অব.), ফেডারেশনের সহসভাপতি মির্জা সালমান ইস্পাহানী, এস এ গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাজ্জাদ আরেফিন, চট্রগ্রাম ক্লাবের মেম্বার ইনচার্জ – আজিজু হাকিম ও চট্টগ্রাম ক্লাবের নির্বাহী পর্ষদের সদস্যবৃন্দ, অংশ গ্রহণকারী খেলোয়াড়েরা, আমন্ত্রিত অতিথি ও সাংবাদিকবৃন্দ।

প্রধান অতিতি হিসাবে এম এ মালেক বলেন, একটি সুস্থ সবল জাতি গঠনে খেলাধুলার কোনো বিকল্প নেই। বিশেষ করে তরুণদের মাঝে এ খেলাটি ছড়িয়ে দিতে পারলে নতুন খেলোয়াড় তৈরি হবে যারা ভবিষ্যতে বাংলাদেশের মর্যাদা বিশ্বের কাছে তুলে ধরতে পারবে।

এস এ গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান শাহাবুদ্দিন আলম বলেন, বঙ্গমাতার স্মরণে আয়োজিত এই টুর্নামেন্টটি সফলভাবে সম্পন্ন করতে পেরে আমরা আনন্দিত। তিনি বলেন, আমাদের এই বিনিয়োগ একটি সুস্থ ও সবল জাতি গঠনের জন্য।  চট্টগ্রামকে আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টের উপযুক্ত একটি ক্ষেত্র হিসেবে তৈরি করতে এই টুর্নামেন্ট ব্যাপক ভুমিকা রাখবে একই সাথে তিনি বিভিন্ন দেশ থেকে আসা খেলোয়াড় ও টুর্নামেন্ট সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান।

স্কোয়াশ ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জি এম কামরুল ইসলাম বলেন, ছেলে ও মেয়েদের নিয়ে আন্তর্জাতিক এই টুর্নামেন্ট সফলতার সাথে শেষ করতে পারায় বহির্বিশ্বে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হবে।তিনি উক্ত টুর্নামেন্টে এস এ গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতার জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

উল্লেখ্য এস এ গ্রুপের পৃষ্টপোষকতায় বন্দর নগরি চট্টগ্রামে ১৮ মার্চ থেকে শুরু হওয়া এই স্কোয়াশ টুর্নামেন্টে ১০ দেশের অংশ গ্রহণে এ  প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ ছাড়াও অংশ নিয়েছে ইন্ডিয়া, পাকিস্তান, শ্রীলংকা, ইরান, কানাডা, মালয়েশিয়া, অস্ট্রেলিয়া, কুয়েত ও মিশরের খ্যাতিমান স্কোয়াশ খেলোয়াড়রা।