১৭ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ || ১লা জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেছেন, পিএইচপি পরিবার ক্রেতাদের জন্য কমমূল্যে নতুন মোটর  গাড়ি তৈরি করছে। বিশ্বখ্যাত মালয়েশিয়ার প্রোটন কারের বিভিন্ন ব্রান্ড  পিএইচপি  ফ্যামিলি এদেশে তৈরি  ও  বাজারজাত করছে। ক্রেতাদের জন্য  নতুন গাড়ি বিভিন্ন শো-রুমে পাঠানো হচ্ছে।

তিনি, পুরোনো ও রিকন্ডিশন গাড়ির পরিবর্তে  দেশে তৈরি প্রোটন গাড়ি ব্যবহার করার জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানান।

পিএইচপি ফ্যামিলির এ খাতে বিনিয়োগের প্রসংশা করে বলেন, নতুন গাড়ি তৈরির ফলে বিশ্বে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হয়েছে। এখন আমরা আর তলাবিহীন ঝুড়ি নই। বাংলাদেশ এখন মধ্যমআয়ের দেশে পরিণত হয়েছে।

রবিবার (২৫ আগস্ট) দুপুরে নগরের আগ্রাবাদে পিএইচপি প্রোটন মোটর ফেস্টিভালে প্রধানঅতিথি হিসেবে পরিদর্শনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি পিএইচপি পরিবারের চেয়ারম্যান সুফি মোহাম্মদ মিজানুর রহমানকে দেশের শিল্পায়নে বৃহৎ উদ্যোগের জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

বিশিষ্ট শিল্পপতি ও পিএইচপি পরিবারের চেয়ারম্যান সুফি মোহাম্মদ মিজানুর রহমান ৫ দিনব্যাপী এ ফেস্টিভালের উদ্বোধন করেন।

পিএইচপি  অটোমোবাইলসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ আকতার পারভেজের  সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে  পিএইচপি ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ আমির হোসেন সোহেলসহ বিভিন্ন ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, নগরের বিশিষ্টজন, সাংবাদিক ও প্রোটনের ডিজিএম এসএম শাহিনুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ফেস্টিভালে প্রোটন প্রিভি, প্রোটন সাগা, প্রোটন পারসোনা ও এক্স-৩০ মোটরগাড়ি প্রদর্শিত হচ্ছে। ২৯আগস্ট পর্যন্ত এ ফেস্টিভালে প্রোটন গাড়িগুলোতে নগদ ১ লাখ টাকা ছাড়সহ ফ্রি রেজিস্ট্রেশন, ৩-৫ বছর বিক্রয়োত্তর সেবা, ৫টি ফ্রি সার্ভিসিং, বাই ব্যাক অফার ও কার-রিপ্লেসের সুবিধা দেয়া হবে বলে জানান ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ আকতার পারভেজ।

তিনি বলেন, পিএইচপি ফ্যামিলি দেশে গাড়ি তৈরির কারখানা প্রতিষ্ঠার কাজ ইতোমধ্যে সম্পন্ন করছে। প্রোটনসহ সব ব্রান্ডের গাড়ির রিপেয়ারিং, মেনটেইনেন্স অ্যান্ড সার্ভিসিংয়ের জন্য চট্টগ্রামে সর্বাধুনিক মোটর ওয়ার্কশপের  মাধ্যমে পিএইচপি মোটরস যাত্রা শুরু করেছে। চট্টগ্রামের পাশাপাশি ঢাকায় আরও ২টি এবং সিলেটে ১টি গাড়ির অত্যাধুনিক ওয়ার্কশপ তৈরি করা হবে, যাতে ক্রেতারা সহজে তাদের গাড়ির সমস্যার সমাধান করতে পারে।

পিএইচপি মোটরসে বিভিন্ন ব্রান্ডের গাড়ির মান অক্ষুণ্ন রেখেই রিপেয়ারিং, মেনটেইনেন্স অ্যান্ড সার্ভিসিংয়ের কাজ করার সুযোগ রয়েছে বলে জানান তিনি।

পারভেজ আকতার আশা করেন, পিএইচপির বিভিন্ন কল-কারখানায় আগামী ১০-১২ বছরের মধ্যে ৫০ হাজারের বেশি লোকের কর্মসংস্থান হবে।

পিএইচপি চেয়ারম্যান সুফি মিজান উদ্বোধন শেষে দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনায় বিশেষ মোনাজাত করেন।