২৪শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ || ৭ই জুন, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ‘সহকারী শিক্ষক’ নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ফেব্রুয়ারিতে । এছাড়াও পরবর্তী দুই মাসের মধ্যে মৌখিক পরীক্ষা শেষ করা হবে। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, এমসিকিউ পদ্ধতির লিখিত পরীক্ষা নিতে ইতোমধ্যে সার্বিক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। এক্ষেত্রে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার সম্ভাব্য তারিখ হতে পারে ১ ফেব্রুয়ারি।

এবার সারা দেশে ১২ হাজার আসনের বিপরীতে এবার ২৪ লাখেরও বেশি চাকরি প্রত্যাশী আবেদন করেছেন। গত বছরের ডিসেম্বর মাসে নিয়োগ পরীক্ষা হওয়ার কথা থাকলেও নানা কারণে তা পিছিয়ে যায়। আগামী ১ ফেব্রুয়ারি লিখিত পরীক্ষা আয়োজনের সব প্রস্তুতি ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে।

এ সম্পর্কে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. এ এফ এম মনজুর কাদির বলেন, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক সঙ্কট নিরসনে ১২ হাজার শিক্ষক নিয়োগ কার্যক্রম শুরু করা হয়। কিছুটা দেরি হলেও পরীক্ষার আয়োজনের সব প্রস্তুতি চূড়ান্ত পর্যায়ে। আগামী পহেলা ফেব্রুয়ারিতে লিখিত পরীক্ষা আয়োজনের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে প্রস্তুতি শেষ করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বর্তমানে এ মন্ত্রণালয়ে নতুন মন্ত্রী আসছেন, তার অনুমোদন নিতে হবে। নতুন মন্ত্রী অনুমোদন দিলে ফেব্রুয়ারিতে নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা আয়োজন করতে কোনও বাধা থাকবে না। আগামী সপ্তাহে মন্ত্রণালয়ে নিয়োগ সংক্রান্ত সভা বসার কথা রয়েছে। সেখানে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে।