১৭ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ || ১লা জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

একাদশ জাতীয় সংসদের তৃতীয় অধিবেশন শুরু হচ্ছে  মঙ্গলবার (১১জুন)বিকেল ৫টায়। এটি হবে চলতি সংসদের প্রথম বাজেট অধিবেশন।আর ১৩ জুন প্রথমবার বাজেট পেশ করবেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। ডিজিটাল পদ্ধতিতে এ বাজেট প্রস্তাবনা উত্থাপন করা হবে। সবাই মনে করছেন, এবারের বাজেট অধিবেশন হবে জমজমাট। কারণ অনেক দিন পর এই অধিবেশনে আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টির পাশাপাশি বিএনপির সংসদ সদস্যরাও আলোচনায় অংশ নেবেন।

পাঁচ মেয়াদে ২১ তম বাজেট দিতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ সরকার। ১৩ জুন বাজেট পেশ করা হলে আলোচনার সময় পাওয়া যাচ্ছে কম। কারণ ৩০ জুনের মধ্যেই পাশ করতে হবে আগামি অর্থবছরের বাজেট। সংসদের চিফ হুইপ বললেন, সব সংসদ সদস্য যাতে আলোচনার সুযোগ পান সেজন্য সরকারি ছুটির দিনেও অধিবেশন চলবে।

সংখ্যায় কম থাকলেও এবার বাজেট আলোচনায় অংশ নিচ্ছেন বিএনপির এমপিরা। অন্যদিকে বিরোধী দল জাতীয় পার্টিতো আছেই। ফলে সরকার ও বিরোধী পক্ষের মধ্যে জমজমাট বাকযুদ্ধ হওয়ার সম্ভাবনা দেখছেন অনেকে।

স্বাধীনতার পর আওয়ামী লীগ সরকারের প্রথম বাজেট উপস্থাপন করেন তৎকালীন অর্থমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদ। ১৯৭২-৭৩ অর্থবছরে বাজেটের আকার ছিল ৭৮৬ কোটি টাকা। আর এবার বাজেটের আকার হচ্ছে পাঁচ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকার। রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হচ্ছে তিন লাখ ৭২ হাজার কোটি টাকার।

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদসহ দেশি-বিদেশি সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত থাকবেন। এ জন্য সংসদে প্রবেশের ক্ষেত্রে কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে।

অধিবেশনে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কারামুক্তিসহ কয়েকটি ইস্যুতে সাধারণ আলোচনা চাইবেন বিএনপিদলীয় এমপিরা। অধিবেশনকে সামনে রেখে সংসদ ভবন এলাকায় কঠোর নিরাপত্তা বেষ্টনী গড়ে তোলার পাশাপাশি ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

সাধারণত জুনের প্রথম সপ্তাহে বাজেট অধিবেশন শুরু হলেও ঈদের ছুটির কারণে এবার একটু দেরিতে শুরু হচ্ছে। তাই এবার প্রস্তাবিত বাজেট নিয়ে আলোচনার জন্য ছুটির দিনেও অধিবেশন বসতে পারে। অধিবেশন শুরুর আগে কার্য উপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে অধিবেশনের মেয়াদ ও কর্মসূচি চূড়ান্ত হবে।

চলতি সংসদের প্রথম বাজেট অধিবেশনকে সামনে রেখে এরই মধ্যে ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে সংসদ সচিবালয়। সংসদ গ্যালারির সাউন্ড সিস্টেম ঠিক করা হয়েছে। অধিবেশন কক্ষের কার্পেট পরিবর্তন করা হয়েছে। চেয়ারগুলোও মেরামত করে নতুন করে সাজানো হয়েছে। সংসদের ভেতরে-বাইরে ধুয়ে-মুছে পরিষ্কার করা হয়েছে।

সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, চলতি অধিবেশনে বাজেট ছাড়াও অর্থ বিলসহ বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিল পাসের সম্ভাবনা রয়েছে। সংবিধান অনুযায়ী ৩০ জুন নতুন অর্থবছরের বাজেট পাস হবে। অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল গতকাল রবিবার দুপুরে সংসদ ভবনে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে বৈঠক করেন। এ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা শেষে তিনি সংসদের অধিবেশন কক্ষ ঘুরে দেখেন। বৈঠক শেষে স্পিকার প্রস্তুতি সম্পন্ন করতে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে স্পিকার বলেন, বাজেট অধিবেশন সামনে রেখে সংসদ সচিবালয় প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নিয়েছে। এবার একটু দেরিতে শুরু হলেও অধিবেশনে বাজেট নিয়ে সবাই কথা বলার সুযোগ পাবেন।

প্রস্তাবিত বাজেট উত্থাপন নিয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা এরই মধ্যে সংসদ সচিবালয়ে পৌঁছেছে। ২০১৯-২০ অর্থবছরের নতুন বাজেটের আকার চলতি বছরের চেয়ে বাড়িয়ে পাঁচ লাখ ২৫ হাজার কোটি টাকা করা হয়েছে। বাজেট অধিবেশন ঘিরে সংসদ সচিবালয়ের পাশাপাশি প্রস্তুতি শুরু করেছেন সরকারি ও বিরোধীদলীয় সদস্যরা। বাজেট ছাড়াও দলীয় চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার মুক্তি নিয়ে অধিবেশনে আলোচনার দাবি জানাবেন বিএনপির সদস্যরা।